বাউফলে সেবা ক্লিনিকে সিজার করতে গিয়ে গৃহবধূর মৃত্যু

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ১৯:৩৭

পটুয়াখালীর বাউফল হাসপাতালের সামনে সেবা ক্লিনিকে সিজার করার পর,  সুমি আক্তার (২২) নামের এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) সকালে তার মৃত্যু হয়। ওই গৃহবধূর স্বামীর নাম  সুজন মাস্টার। বরিশালের স্বরুপকাঠি উপজেলায় তার বাড়ি।

জানা গেছে, সুমি আক্তার কয়েক দিন বাউফলের কালাইয়া ইউনিয়নের কমলা রানীর  দীঘির পার তার বাবা মফিজ জোমাদ্দারের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। গত শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) সুমি আক্তারের প্রসব বেদনা শুরু হলে আত্বিয় স্বজনরা তাকে শহরের হাসপাতালের সামনে সেবা ক্লিনিকে নিয়ে অসেন। সেখানে কথিত ডাক্তার আহম্মেদ কামাল তার সিজার করেন। একটি মেয়ে সন্তান জন্ম হয়।

গৃহবধূ সুমির এক চাচা অভিযোগ করেন, সিজারের সময় তার প্রচুর পরিমান রক্ত ক্ষরণ হয়েছে। শরীর ফ্যাকাশে হয়ে যায়। সোমবার (২২ এপ্রিল) তাকে ক্লিনিক থেকে ছেড়ে দেয়া হয়। তখনও  তার শরীরের অবস্থা ভাল ছিলনা। প্রচন্ড রকম শ্বাস কষ্ট হচ্ছিল। মঙ্গলবার সকালের সুমি আক্তার শ্বাস কষ্ট শুরু হলে আত্বিয় স্বজনরা তাকে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার আবদুর রউব তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

ধারণা করা হচ্ছে, সিজারের সময় অভ্যন্তরিণ রক্তক্ষরণ হওয়ায়  তার মৃত্যু হতে পারে। অভিযোগ রয়েছে, সেবা ক্লিনিকের ডাক্তার আহম্মেদ কামাল সিজার করে থাকেন। এর আগেও ওই ক্লিনিকে সিজারের সময় তার হাতে বেশ কয়েকজন প্রসূতি মা ও সন্তানের মৃত্যু হয়েছে। ডাক্তার আহম্মেদ কামালের সিজারের ক্ষেত্রে ডিজিও করা নেই। তার কোন ডিগ্রী ও নেই। তিনি সর্ম্পুর্ণ অবৈধ ভাবে সিজার করেন। এ ব্যাপারে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ বলেন, সুমি আক্তারকে সম্পূর্ণ সুস্থ্য অবস্থায়ই তারা রিলিজ করেছেন।
       
এবিএন/দেলোয়ার হোসেন/জসিম/রাজ্জাক

এই বিভাগের আরো সংবাদ