জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কর্তৃক

বান্দরবানে সাংবাদিকদের পাথর ব্যবসায়ী বলায় প্রতিবাদ সভা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২২ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:৪৯ | আপডেট : ২২ এপ্রিল ২০১৯, ২০:১৩

বান্দরবানে গত ২০ তারিখ নদীরক্ষা সম্মিলনে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা মারমা একতরফা ঢালাওভাবে মনগড়া বক্তব্যে বান্দরবনে কর্মরত সাংবাদিকদের পাথর ব্যবসায়ী আখ্যায়িত করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বান্দরবনে কর্মরত সাংবাদিকরা।

আজ সোমবার (২২ এপ্রিল) সকাল ১১ টায় বান্দরবান প্রেসক্লাবের হলরুমে এই পর্যালোচনা ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। বান্দরবান জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈহ্লা মারমা গত ২০ তারিখ বান্দরবান হিল ভিউ কনভেনশন হল রুমে বাংলাদেশ নদীরক্ষা কমিঠির সম্মিলনে বক্তব্য রাখার সময় সাংবাদিকরা পাথর ব্যবসায় জড়িত আখ্যায়িত করায় এই প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বান্দরবান প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বাচ্ছুর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় গৃহীত হয়, যারা প্রকৃত ভাবে পাথর ব্যবসার সাথে জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনার প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়। একজন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ঢালাওভাবে অন্যের উপর দোষ চাপিয়ে লাগামহীন বক্তব্য কিভাবে দেন। এভাবে ঢালাওভাবে সাংবাদিকদের দোষারোপ না করে যারা প্রকৃত পাথর ব্যবসার সাথে জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনার জোর দাবি জানানো হয়।

প্রতিবাদ সভা শেষে স্মারকলিপির কয়েকটি কপি বাংলাদেশ নদী রক্ষা কমিটি, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি, বান্দরবান ব্রিগেড কমান্ডার, বান্দরবান জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তর বরাবরে পাঠানো হয়।

প্রতিবাদ সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, দৈনিক কালের কণ্ঠের স্টাফ রিপোর্টার মনিরুল ইসলাম মনু, প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি বুদ্ধ জ্যোতি চাকমা, এটিএন বাংলা ও এটিএন নিউজের বান্দরবান জেলা প্রতিনিধি মিনারুল হক, দৈনিক সমকালের বান্দরবান জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা, যমুনা টিভির বান্দরবান জেলা প্রতিনিধি বাটিং, এশিয়া টিভির জেলা প্রতিনিধি নুরুল কবির, বিজয় টিভির বান্দরবান জেলা প্রতিনিধি রিমন পালিতসাহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।
 

এবিএন/আব্দুর রহিম/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food