ফুলবাড়ীতে স্কুল মাঠে বসছে গরু-ছাগলের হাট

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:৩৮

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার রাবাইতারী এসবি বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে বসছে গরু ছাগলের হাট। 

এমনিভাবে চলে আসছে বছরের পর বছর খড়িবাড়ী হাটের এসব কর্মকান্ড। ক্রেতা বিক্রেতার উপস্থিতি বেশি হওয়ায় অন্যান্য হাটের চেয়ে এক বছরে রাজস্ব আদায় ২৪ লক্ষ ছত্রিশ হাজার টাকা। 

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রভাবশালী নেতা আতাউর রহমান শেখের ছোট ভাই হাট ইজারাদার আহাম্মদুর রহমান শেখ আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা হওয়ায় স্কুল শিক্ষার্থী ও গভর্নিং বডির সদস্যরা ভয়ে তাদেরকে কিছু বলতে পারে না। 

এখানে গরু, ছাগল, মহিষ, ভেড়া, বাইসাইকেল, রিক্সা, ভান, ট্রলি, সুপারি, কাঠের তৈরি খাট, চেীকিসহ অন্যান্য দ্রব্যসামগ্রী। এমনকি হাটবাজারের টোল আদায়ের বিলবোর্ডও লাগানো হয়নি, ইচ্ছামত টোল নেন তারা।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, সপ্তাহে শুক্রবার ও সোমবার করে বসে গরু ছাগলের হাট। হাট ইজারা কমিটির চুক্তিনামায় ২৪ লক্ষ ছত্রিশ হাজার টাকায় রাজস্বে এক বছরের জন্য খড়িবাড়ী হাটটি ইজারা দেওয়া হয়েছে। 

চুক্তির শর্ত অনুযায়ী ইজারাদার হাট সীমানার বাইরে কোন প্রকার দ্রব্যসামগ্রীর হাট বসাতে বা টোল আদায় করতে পারবে না। এ ছাড়াও ইজারাদার নিজ খরচে পরিষ্কার রাখবে। কিন্তু বাস্তবে তা দেখা গেছে ভিন্ন। 

ইজারাদার যে, সকল শর্ত ভঙ্গ করে রীতিমতো হাটের বাইরে স্কুল মাঠে হাট বসিয়েছেন। এমন একটি বড় বিদ্যাপিঠ মাঠে বসে গরু ছাগলের হাট, মাঠটি প্রায় সময় থাকে নোংরা অ-পরিচ্ছন্ন  ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মকর্তা-কর্মচারী ও ছাত্র ছাত্রীরাও ইজারাদারের ভয়ে কথা বলতে চান না।

ঘড়িবাড়ী হাটের ইজারা গ্রহীতা আহাম্মদুর রহমান শেখের সাথে মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি জানান, অনেক বছর থেকে ওই স্কুল মাঠে গরু ছাগলের হাট বসে তাই প্রতি শুক্রবার ও সোমবার হাট বসানো হয়। হাট শেষে আমরাই মাঠটি পরিষ্কার করে রাখি যাতে প্রতিষ্ঠানের কোন প্রকার সমস্যা না হয়। 

রাবাইতারী এসবি বহুমূখি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজাউর রহমান বলেন, হাট ইজারার জায়গা কম থাকায় স্কুল মাঠে গরু ছাগলের হাট বসে। আমি প্রায় এক বছর হয়েছি প্রধান শিক্ষককের দায়িত্ব নেবার এই মাঠে অনেক বছর থেকে হাট বসে। তবে স্কুল মাঠে গরু ছাগলের হাট বসানোর কোন নিয়ম নেই। 

এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা. মাছুমা আরেফিন জানান, যার নামে হাট ইজারা দেওয়া হয়েছে চুক্তিনামায় উল্লেখ করা আছে সরকারি ইজারা মূল্যের জায়গা ছাড়া স্কুল মাঠে গরু ছাগলের হাট বসানো যাবে না। তবে বিষয়টি খুব দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভিন জানান, বিষয়টি এখন শুনলাম আমি দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বলতেছি। স্কুল মাঠে আর যেন গরু ছাগলের হাট না বসে। 

এবিএন/বিশ্বনাথ রায়/গালিব/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ