ইন্দুরকানীতে মাদ্রাসা ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে দপ্তরী গ্রেপ্তার

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১১ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৫২

পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে পত্তাশী এস দাখিল মাদ্রাসার দপ্তরী ফেরদাউস তালুকদার (৪০) কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

গতকাল বুধবার স্থানীয় জনতা গণধোলাই দিয়ে মাদ্রাসা থেকে ঐ দপ্তরীকে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় যৌন হয়রানির শিকার ঐ ছাত্রীর পিতা ফিরোজ বাদী হয়ে বুধবার বিকালে থানায় মামলা দায়ের করেন। 

এ ঘটনায় গত ৯ এপ্রিল  মঙ্গলবার এস দাখিল মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী সুমাইয়া আক্তারকে (১৩) চানাচুর খাবার কথা বলে দপ্তরী ফেরদাউস সুমাইয়া আক্তারের হাত ধরে। 

এ বিষয়ে সুমাইয়া, ঐ মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষিকা উম্মে কুলসুমের নিকট বুধবার অভিযোগ করেন। পরে ঘটনাটি জানাজানী হলে সুমাইয়ার পরিবার বুধবার সকালে লোকজন নিয়ে মাদ্রাসায় এসে দপ্তরী ফেরদাউসকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশকে খবর দিয়ে থানায় সোপর্দ করে। ফেরদাউস পত্তাশী গ্রামের আঃ মন্নাফ তালুকদারের ছেলে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর পিতা যৌন হয়রানীর অভিযোগে ঐ কর্মচারীর বিরুদ্ধে বুধবার বিকালে ইন্দুকানী থানায় মামলা দায়ের করেন।

অভিযুক্ত দপ্তরী ফেরদাউস তালুকদার জানান, সুমাইয়া আমাকে দোকান থেকে চানাচুর আনতে বললে আমি তাকে চানাচুর এনে দি। এতে হাত ধরার মত তো কোন ঘটনা ঘটেনি। 

এ ব্যাপারে ইন্দুরকানী থানার ওসি (তদন্ত) এ. এম মাহাবুবুর রহমান জানান, যৌন হয়রানীর অভিযোগে এক মাদ্রাসার কর্মচারীকে আটক করা হয়েছে  এবং তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

এবিএন/সিরাজুল ইসলাম/গালিব/জসিম
 

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food