কুষ্টিয়ায় বিয়ের প্রলোভনে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০১ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:৪০

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কুষ্টিয়ার ইবি থানাধীন হরিনারায়নপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে এক ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে।

ওই ছাত্রলীগ নেতার নাম জুয়েল রানা, সে একই থানাধীন খাতের আলী কলেজ ছাত্রলীগের নেতা। পরে অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে আটক করেছে ইবি থানা পুলিশ।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, এসএসসি পরীক্ষার্থী ওই ছাত্রী গত ২৭ মার্চ সদর থানার বংশীতলা গ্রামে খালার বাড়ি বেড়াতে যায়। সেখান ২ দিন বেড়ানোর পরে গত ৩০ মার্চ সকালে ইবি থানা এলাকার বড়ইটুপি গ্রামের তার আরেক খালার বাড়িতে বেড়াতে যায়। সেখানে মোবাইলে যোগাযোগের মাধ্যমে ওই ছাত্রীকে বাইরে নিয়ে আসে ছাত্রলীগ নেতা জুয়েল রানা।

পরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মেয়েটিকে নিয়ে বিভিন্ন স্থানে ঘোরাঘুরির একপর্যায়ে শান্তিডাঙ্গা এলাকার রনি শেখ নামে এক বন্ধুর বাড়ি নিয়ে যায় জুয়েল। এবং সেখানে তাকে ধর্ষণ করে।  পরের দিন (৩১মার্চ) সকালে ওই ছাত্রী তাদের বিয়ের বিষয়ে বললে তাকে ইবি থানার বিত্তিপাড়া বাজারে ডেকে নিয়ে কৌশলে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে মেয়েটি তার পরিবারকে জানালে পরিবারের লোকজন মেয়েটিকে নিয়ে ইবি থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করে। সূত্রে জানা যায়, মেয়েটির সাথে ও ছাত্রলীগ নেতার প্রেমের সম্পর্কও ছিল।

ইবি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রতন শেখ জানান, ‘মেয়েটির অভিযোগ আমলে নিয়ে থানায় ‘নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে’ একটি মামলা দায়ের হয়েছে। ইতোমধ্যে ওই আসামি জুয়েল রানাকে আটক করা হয়েছে। তার সহযোগী রনিকে আটকের চেষ্টা চলছে’।


এবিএন/অনি আতিকুর রহমান/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ