সৎ রাজনীতিক হিসেবে যিনি টানা ৭ বারের জনপ্রতিনিধি

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৩ মার্চ ২০১৯, ১৬:৫৪

১৯৭০ সালে ছিলেন উপজেলা ছাত্র সংগ্রামী পরিষদের আহবায়ক।  তারপর ১৯৭১ সালে যোগ দেন মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে।  মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে রয়েছে তার সুখ্যাতি। ১৯৭৪ সালে যিনি  টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর ১৯৮৪ সালে উপজেলার গোড়াই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। সেই থেকে শুরু। টানা পাঁচ বার তিনি গোড়াই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। ১৮ বছর দায়িত্ব পালন করেছেন বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সমিতির কেন্দ্রীয় সভাপতি হিসেবে।

তারপর ২০০৮ সালে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে বিজয়ী হয়েছেন। দ্বিতীয় মেয়াদেও তিনি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। টানা দুই মেয়াদে চেয়ারম্যান থাকাকালীন স্কুল ভবন পাকাকরন, কালভার্ট নির্মান, প্রামীণ রাস্তার উন্নয়নসহ বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কাজ করেছেন।

এমন গৌরবময় রাজনৈতিক ক্যারিয়ার যিনি ধারন করেন তিনি আর কেউ নন উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি, টানা পাঁচ বারের ইউপি চেয়ারম্যান ও টানা দুই বারের উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর এনায়েত হোসেন মন্টু। দক্ষ, সৎ ও নিষ্ঠাবান রাজনীতিক হিসেবে দলমত নির্বিশেষে যার রয়েছে অসীম সুখ্যাতি।

এবারের উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে যিনি দলীয় ভোটে প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পর আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে ভোটের মাঠে বিরামহীন প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

মীর এনায়েত হোসেন মন্টু বলেন, রাজনীতির কাছে জীবন বিলীন করে দিয়ে মানুষের কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত করেছি। সততা বজায় রেখে কাজ করেছি সব সময়। তাই জনগণ বার বার আমাকে তাদের একজন সেবক হিসেবে নির্বাচিত করেছে। আশাকরি এবারও আমাকে তারা বিমুখ করবে না। জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত এই এলাকার মানুষের উন্নয়ন করে যেতে চাই।

এবিএন/মো. জোবায়ের হোসেন/জসিম/রাজ্জাক

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food