সেনবাগে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৬:৩৬

সেনবাগের কাদরা ইউপির নিজসেনবাগ দক্ষিণ পাড়া থেকে ঝুলন্ত অবস্হায় ফেন্সী আক্তার (২৭) নামে এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাতে ওই গ্রামের মিয়া খালাসী বাড়ীর প্রবাসীস্বামী সবুজের বসত ঘরের বুতুরের সাথে ওড়না পেছানো মরদেহটি উদ্ধার করেছেন সেনবাগ থানার এসআই সৌরজিৎ বড়ুয়া। ফেন্সীর ৪ বছর বয়সের সম্রাট ও আড়াই বছরের সাজ্জাদ নামে দুটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

নিহত গৃহবধু মোহাম্মদপুর ইউপির দক্ষিণ মোহাম্মদপুর নাদু ছেরাংবাড়ীর প্রবাসী ছালা উদ্দিনের কন্যা। গৃহবধূ ফেন্সীর চাচা জামাল হোসেন জানান,সাত বছর আগে নিজ সেনবাগ গ্রামের সবুজের সাথে ফেন্সীর বিয়ে হয়। এর পর থেকে জামাই ও তার পরিবারের সাথে যৌতুক ও বেকারত্ব নিয়ে প্রায়ই কথাকাটাকাটি হতো ফেন্সীর । সবুজের বোন মমতাজ জিনের আসর বসাতো ঘরে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে রয়েছে অমিল।

মেয়ের সুখ শান্তির কথা বিবেচনা করে প্রবাসী পিতা ও প্রবাসী ভাই দেশে এসে কয়েকবার সালিশ বৈঠক করে মিলিয়ে দেয় তাদের। পরে জামাই সবুজকে গৃহবধুর পিতা সৌদি আরবে পাঠায়। কিছুদিন পর সে দেশে ফিরে আসে। মেয়ে দুই নাতীর ভবিষ্যৎ চিন্তা করে ভিসা দিয়ে আবারো সবুজকে ওমান পাঠায় শশুর। এতেও তাদের বনিবনা হচ্ছেনা। প্রায়ই লেগে থাকতো বিরোধ। গতকাল শুক্রবার দুপুরে বসত ঘরের বুতুরের সাথে ওড়না পেছানো নিথর দেহ ঝুলতে থাকে ফেন্সীর। খবর পেয়ে তার মা জাহানা বেগম ও স্বজনরা পুলিশে খবর দিয়ে লাশ উদ্ধার করেছেন। বর্তমানে ফেন্সীর মরদেহ থানার বারান্দায় রয়েছে।

গৃহবধূর মা জাহানারা বেগম জানান, তার মেয়েকে স্বামীর পরিবার নির্যতন করে লাশ ওড়না পেছিয়ে বুতুরের সাথে আটকিয়ে রাখে। দুই নাতী সম্রাট ও সাজ্জাদ কে তার হেফাতে নিয়েছেন। এ ব্যাপারে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জাহানারা বেগম।
সেনবাগ থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, আজ শনিবার সকালে লাশ ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালীর মর্গে প্রেরন করা হবে।  ময়না তদন্ত রির্পোটের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্হা নেয়া হবে।
 

এবিএন/ফিরোজ আলম/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ