খেলার মাঠে পানি : কুলাউড়ায় ক্রিকেট লীগ বন্ধ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৬:১৭

পরিকল্পনা ছাড়াই ড্রেনেজ ব্যবস্থা। বৃষ্টি নেই তবুও পানি থৈ থৈ করছে মাঠে। অসময়ে মাঠে পানির দরুন বন্ধ রয়েছে প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগ ২০১৯। ফলে বিপাকে পড়েছে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা।
 
কুলাউড়া উপজেলা সদরের একমাত্র খেলার মাঠ নবীন চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ । এই মাঠেই চলছে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগ ২০১৯। এ অবস্থায় বাধা হয়ে দাড়িয়েছে মাঠে বৃষ্টিহীন পানি ।

নিয়মিত সব ধরনের খেলাধুলা অনুষ্ঠিত হয় এই মাঠে। অথচ নিত্য প্রয়োজনীয় বিশাল এ মাঠটির যেন এখন অভিভাবকশূন্য। সঠিক ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় বৃষ্টি ছাড়াই মাঠটিতে জমে আছে হাঁটু পানি। যার ফলে খেলাধুলার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে মাঠটি। ক্রীড়া প্রেমীদের পোহাতে হচ্ছে চরম দুর্ভোগ।

জানা যায়, গত ৯ ফেব্রুয়ারী  মাঠের পাশ দিয়ে নির্মিত ড্রেন উপচে পানি ডুকেছে। দেখে মনে হচ্ছিল খুব বৃষ্টির ফলে পানি ডুকেছে। তবে এটা পরিকল্পনা ছাড়াই ড্রেন নির্মাণের ফলে এ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে মাঠে পানি থাকায় টুনামের্ন্ট পরিচালনা কমিটি পড়েছেন বিপাকে। টুনামের্ন্ট শেষ করা নিয়ে রয়েছেন দুচিন্তায়। খেলোয়াডরাও রয়েছেন মহাভাবনায়। এ অঞ্চলের ক্রীড়া প্রেমীরা ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।

টুর্নামেন্টে অংশগ্রহনকারী ডিফেন্ট ক্লাবের কর্মকর্তা মুহিত ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, কোন বৃষ্টি ছাড়া মাঠে হাবুডুবু খাচ্ছে পানি। তিনি বলেন, টীম গঠন করতে অনেক টাকা খরচ করেছি। টুর্নামেন্ট বন্ধ হয়ে গেলে আমাদের ক্ষতিপুরণ দিতে হবে। সোনাপুর সমাজকল্যাণ সংস্থার টীম ম্যানেজার বলেন, এর থেকে গ্রাম অনেক ভালো। কুলাউড়ার একটি ঐতিহ্যবাহী মাঠ এটি। এ মাঠ থেকে অনেক খেলোয়াড জাতীয় পর্যায়ে সফলতা অর্জন করছে। অথচ শহরের প্রাণকেন্দ্র খেলার মাঠ যখন বৃষ্টিহীন পানিতে থৈ থৈ করছে।
     
কুলাউড়া উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ বলেন, পরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় এই মাঠে প্রতিটি ইভেন্টে খেলা শুরুর আগে অনেক টাকা খরচ করে অনেক কষ্টের বিনিময়ে মাঠ প্রস্তুত করতে হয়। চলমান ক্রিকেটলীগ শুরুর আগেও প্রচুর টাকা ব্যয় করে মাঠ প্রস্তুত করা হয়েছিলো। হঠাৎ বৃষ্টিহীন পানির কারণে মাঠের অবস্থা খারাপ হয়ে যাওয়ায় খেলা স্থগিত রাখা হয়েছে।
    
এ ব্যাপারে কুলাউড়া উপজেলা নিবার্হী অফিসার ও ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি মোঃ আবুল লাইছ বলেন, এ বিষয়ে পৌর কর্তৃপক্ষ কে বলা হয়েছে। ঠিক হয়ে যাবে দ্রুত।

 

এবিএন/ময়নুল হক পবন/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ