মাদক ব্যবসায়ীকে সহযোগিতা করায় ওসি ক্লোজড

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৯ মে ২০১৮, ১৬:১৯

চুয়াডাঙ্গা, ২৯ মে, এবিনিউজ :  সারাদেশে ন্যায় চুয়াডাঙ্গা জেলাতেও মাদকবিরোধী চলমান অভিযান চলাকালে এক মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার করে মোটা অংকের উৎকোচের বিনিময়ে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগে দামুড়হুদা মডেল থানার ওসিকে ক্লোজড করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার রাতে তাকে থানা থেকে ক্লোজড করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। একই সাথে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কমিটির প্রধান করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তরিকুল ইসলামকে। কমিটির অন্য দুই সদস্য হলো- সহকারী পুলিশ সুপার (হেড কোয়াটার) আহসান হাবীব ও জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার ইনচার্জ ইন্সপেক্টর গোলাম মোহাম্মদ।

জানা গেছে, ইন্সপেক্টর আকরাম হোসেন কয়েক বছর আগেই বদলির আদেশ নিয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশে যোগদান করেন। গতবছর তিনি জেলার শ্রেষ্ঠ ওসিও মনোনীত হন।

আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ হিসেবে দায়িত্ব পালনের এক পর্যায়ে দামুড়হুদার মডেল থানার ওসি হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়। দায়িত্ব পালনের মাঝে গত ২৪ মে রাতে চুয়াডাঙ্গার দর্শনার শীর্ষ এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতারের পর মোটা অংকের ঘুষ বাণিজ্যের মাধ্যমে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ ওঠে। ওই মাদক ব্যবসায়ীকে এলাকা থেকে পালিয়ে যাওয়ার জন্য সহযোগিতা করার মত গুরুতর অভিযোগও ওঠে ওসি আকরামের বিরুদ্ধে। বিষয়টি নিয়ে গত কয়েকদিনে তুমুল সমালোচনা শুরু হয়।

এমন প্রেক্ষিতে সোমবার রাত ১১টার দিকে ওসি আকরাম হোসেনকে থানা থেকে ক্লোজড করে পুলিশ লাইনে নেওয়া হয়।

এ বিষয়ে চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার জানান, আমরা যখন মাদকবিরোধী অভিযান জোরদার করেছি। দিনরাত পরিশ্রম করে মাদককারবারি নির্মূল করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি তখন মাদককারবারিকে সরে যেতে সহায়তা করার বিষয়টি আমাদের হতবাক করেছে।

ফলে, প্রাথমিক তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে সাময়িকভাবে তাকে তার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে। গঠন করা হয়েছে তিন সদস্যের বিভাগীয় তদন্ত টিম । তদন্ত প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এবিএন/সনজিত কর্মকার/জসিম/রাজ্জাক

এই বিভাগের আরো সংবাদ