নাসিরনগরে কিশোরী স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের শিকার

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৬:০৬

জেলার নাসিরনগরে প্রাইমারী স্কুলে পড়োয়া এক নাবলিকা ছাত্রী প্রতিবেশী বখাটে যুবকের ধর্ষণের শিকার হয়েছে। ওই ঘটনায় ছাত্রীর মা বাদী হয়ে ধর্ষক ও তার বাবার বিরুদ্ধে নাসিরনগর থানার মামলা নং- ৩৫ তারিখ ৩১ জানুয়ারি ২০১৯ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৯ জানুয়ারি বিকেল অনুমান ৫ ঘটিকার সময় বাদীনির বসত ঘরে উপজেলার ভলাকুট ইউনিয়নের ভলাকুট গ্রামে। মামলা সূত্রে জানাগেছে, বাদীনি তার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়োয়া ১১ বছর বয়সী স্কুল ছাত্রীকে বাড়িতে রেখে পল্লীবিদ্যুতের বিল পরিশোধ করতে নাসিরনগর আসেন।

এসময় প্রতিবেশী সামছু মিয়ার ছেলে বখাটে মো. ছায়েদুল মিয়া (২০), ওই ছাত্রীকে একা ঘরে পেয়ে দরজা বন্ধ করে মুখে উড়না চেপে ধরে হাত ও মুখ বেধে হত্যার ভয় দেখিয়ে নাবালিকা ছাত্রীর ইচ্ছার বিরোদ্ধে জোরপূর্বক কয়েক বার ধর্ষণ করে।

ধর্ষিতার চিৎকারে প্রতিবেশী লোকজন এসে ধর্ষককে উলঙ্গ অবস্থায় দেখতে পেয়ে ধরতে গেলে তাদেরকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায় ধর্ষক ছায়েদুল। ধর্ষকের ধর্ষণের ফলে ওই ছাত্রী অজ্ঞান হয়ে পড়ে। ছাত্রীর মা বাড়িতে গিয়ে মেয়ের এই অবস্থা দেখতে পেয়ে ধর্ষকের পিতা-মাতা আত্মীয় স্বজন ও এলাকাবাসীকে জানিয়ে থানায় মামলা দায়ের করে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদীকা তানিয়া খন্দকার এ ন্যাক্কার জনক ঘটনার সুবিচার দাবি করেছেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নাসিরনগর থানার উপ-পুলিশ পরির্দশক মো. তারিকুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ভিকটিমের ২২ ধারা জবানবন্দি সহ ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন হয়েছে। বর্তমানে আসামীরা পলাতক রয়েছে। ডাক্তারী পরীক্ষার ফলাফলের অপেক্ষায় রয়েছি ও আসামী গেপ্তারের চেষ্টা চলছে।


এবিএন/আব্দুল হান্নান/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food