বদলগাছীতে কয়লা সংকটে ইট ভাটা বন্ধ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৪৬

কয়লার মূল্য হঠাৎ বৃদ্ধি পাওয়ায় বদলগাছী ইট ভাটা মালিকদের দুর্দিন শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে ভাটা মালিকেরা। 

এ সময় ব্যস্ত থাকে বদলগাছী ইটভাটাগুলো। কিন্তু শুধুমাত্র কয়লা সংকটে আজ ভাটাগুলোতে নেই কর্মব্যস্ততা। একদিকে কয়লার উচ্চমূল্য অপরদিকে বাজারে ইটের চাহিদা না থাকায় বিপাকে পড়েছে ইটভাটা মালিকেরা। বিপুল অর্থ বিনিয়োগ করে লাখ লাখ কাঁচা ইট ভাটায় প্রস্তুত করার পর কয়লা ও লেবার সংকটে পড়েছেন তারা। চলতি মৌসুমে ইট ভাটায় ইট পোড়ানোর সময় আছে মাত্র দেড় মাস। 

বদলগাছীতে ২৪টি ইট ভাটায় আগুন দেওয়ার পর কয়লা সংকটে পড়েছে ভাটা মালিকরা। 

বদলগাছী উপজেলা ইটভাটা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ খোরশেদ আলম বলেন, শুধু কয়লা সংকটই নয় মাটি, লেবার সব মিলিয়ে প্রতি হাজার ইটে আমাদের খরচই পড়ছে সাড়ে ৬ হাজার টাকা। 

মন্ডল ব্রিক্স এর মালিক মোঃ দেলোয়ার হোসেন বলেন, প্রতি বছর নভেম্বর মাসে বদলগাছীর প্রায় সবগুলো ভাটায় ইট পোড়ানো কাজ শুরু হয়। গত বছর ইটের দাম ছিল সাড়ে ৬ থেকে ৭ হাজার টাকা। এ বছর ভাটায় নতুন আগুন দেওয়ার সময় যে কয়লা টন প্রতি ছিল ১০ থেকে ১১ হাজার টাকা এখন সেটা ১৫ থেকে ১৬ হাজার টাকায় কিনতে হচ্ছে। ফলে খরচ বেড়ে যাওয়ায় এবার ইটের মূল্য পড়েছে প্রতি হাজার সাড়ে ৬ হাজার টাকা। 

বদলগাছী ইটভাটা মালিক সমিতির সহ-সভপতি মোঃ বেলাল হোসেন বলেন, এবার কয়লার দাম বেড়ে যাওয়ায় ইট পোড়াতে খরচ অনেক বেশী পড়ছে। আমরা ইটভাটা মালিকরা লাখ লাখ কাঁচা ইট কেটে বসে আছি। 

কয়লার দাম বেশী হওয়ায় আমরা ইট পোড়াতে পারছি না। তার উপর এবার ক্রেতার সংখ্যাও অনেক কম। ফলে উন্নয়ন কাজ ব্যাহত হওয়ার আশংকা করা হচ্ছে। বেকার হয়ে পড়েছে হাজার হাজার শ্রমিক। সব ভাটা না চলার কারণে তাদের আয় বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। 

ফলে তারা মাঝে মধ্যে রিক্সাভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছেন। কয়লার দাম কমিয়ে ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে আনার জন্য ইট ভাটার মালিকরা সরকারের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।
 
এবিএন/হাফিজার রহমান/গালিব/জসিম


 

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food