ভালুকায় পরকীয়ার জেরে নারী খুন : আটক ২

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৮ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:৪৫

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলায় চেরুয়া রবিদাসের স্ত্রী  মায়া রাণী (৩০)কে পরকীয়ার জেরে হত্যা করে লাশ আম গাছে ঝুলিয়ে রেখেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটে রবিবার রাতে সদর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের শিঙ্গার আগার পাড়ায়। এ ঘটনায় পুলিশ ২জনকে আটক করেছে।

থানা ও পরিবার সূত্রে জানাযায়, চেরুয়া রবিদাসের সুন্দরী স্ত্রী মায়া রাণীর সাথে অবসর প্রাপ্ত সেনা সদস্য নিশাইগঞ্জ গ্রামের মৃত উসমান মন্ডলের ছেলে জালাল উদ্দিনের সাথে দীর্ঘ দিন যাবত পরকীয়া সম্পর্ক ছিল। এ নিয়ে স্থানীয় ভাবে বেশ কয়েকবার সালিশ দরবার হয়েছে।

 নিহতের স্বামী আর্টি কম্পোজিট মিলের শ্রমিকের কাজ করে। রোববার রাতে মিলের ডিউটি শেষে বাড়ি ফিরে এসে মায়া রাণীকে ঘরে না পেয়ে তার মেয়ে গীতার কাছ থেকে জানতে পাড়ে তার মা বাইরে গেছে। চেরুয়া ঘরের বাইরের গিয়ে তার স্ত্রীকে খোঁজাখোজি করতে গিয়ে দেখে জালাল ও মায়ারাণীকে এক সাথে পায়। চেরুয়াকে দেখে জালাল পালিয়ে যায়।

পরে চেরুয়া ক্ষিপ্ত হয়ে মায়ারাণীকে মারধর ও শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে পাশের একটি আম গাছে নিহতের কাপড় দিয়েই লাশ ঝুলিয়ে রাখে। পরে চেরুয়া রবিদাস থানায় এসে অভিযোগ করে তার স্ত্রীকে জালাল মেলেটিরি খুন করে ঝুলিয়ে রেখেছে। ঘটনাটি সন্দেহ হলে পুলিশ নিহতের স্বামী চেরুয়া ও পরকীয়া প্রেমিক জালাল উদ্দিনকে আটক করে।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা সন্তোষ বাদী হয়ে ভালুকা মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

নিহতের মেয়ে গীতা রাণী জানায়,ঘটনার দিন রাতে জালাল তাদের বাড়িতে আসে। তার মা তাকে খাবার দিয়ে বাইরে চলে যায়। পরের তার বাবা এসে তার মার কথা জিজ্ঞেস করলে উত্তরে সে জানায় তার মা বাইরে গেছে।

ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ফিরোজ তালুকদার জানান,পরকীয়ার কারণে স্ত্রীকে স্বামী হত্যা করে আম গাছে ঝুলিয়ে রেখেছে। এ ঘটনায় প্রেমিক জালাল ও নিহতের স্বামীকে আটক করা হয়েছে।  

 

এবিএন/জাহিদুল ইসলাম/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food