মহিলা আসনে এমপি হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে রওনক বিশাখা শ্যামলী

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৭ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:২৪

সংরক্ষিত মহিলা আসন শরীয়তপুর (১,২,৩) থেকে সংসদ সদস্যের মনোনয়নের জন্য নিজের প্রার্থিতা ঘোষণা করেছেন রওনক বিশাখা শ্যামলী।

তিনি শরীয়তপুরের আওয়ামী লীগ নেতা সৈয়দ আহমেদ বিশাখার মেয়ে।  তার নানা এ কেএম এনামুল হক শামীম বর্তমানে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী।

তিনি দীর্ঘ একযুগ অভিনয়ের সাথে যুক্ত আছেন সুনামের সাথে।  তিনি  নৌকার বিজয়ের জন্য মন থেকে ভালোবেসে শরীয়তপুর রাজনীতিতে ব্যাপক প্রচারণা করেছেন এনামুল হক শামীমের পক্ষে।  

শরীয়তপুর সখিপুরের মেয়ে শ্যামলী বদরুন্নেঁছা মহিলা কলেজ থেকে এইচএসসি, অনার্স ও ইডেন থেকে মাষ্টার্স সম্পন্ন করেন। এমবিএ করেছিলেন নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি থেকে।  এখন বর্তমানে জাহাঙ্গীর নগর থেকে পররাষ্ট্র নীতিতে পিএচডি করছেন। বিষয় ভারত বাংলাদেশ সম্পর্ক।  ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতির সাথে যুক্ত।  কারন শেখ হাসিনা তার কলেজে ভিপি ছিলেন। তিনি তার অনুপ্রেরণা।

রওনক বিশাখা শ্যামলীর বাবা সৈয়দ আহমেদ বিশাখা শরীয়তপুরের আওয়ামী লীগ রাজনীতিতে জনপ্রিয় নাম।  আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের রাজনীতিতে তিনি ভূমিকা রেখেছেন। শ্যামলী বর্তমান শরীয়তপুর জেলা তাঁতীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নির্বাচন পযবেক্ষক ও পর্যবেক্ষণ কমিটির সদস্য ছিলেন।এছাড়াও তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ফাউন্ডেশনের প্রচার সম্পাদক ছিলেন।

তিনি আশিটা বিজ্ঞাপনের মডেল, গ্রামীন ফোনের বিলবোর্ড, একশ নাটকের নায়িকা, কয়েক শত জনপ্রিয় অনুষ্ঠানের উপস্থাপক ও গায়িকা।

শরীয়তপুরের মেয়ে মডেল কন্যা রওনক বিশাকা শ্যামলি প্রার্থিতা ঘোষণার পর থেকে সর্বত্র চলছে আলোচনা।  শহর থেকে শুরু করে প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের চায়ের দোকানসহ রাজনৈতিক মহলে চলে এই আলোচনা। সাধারণ মানুষ রওনক বিশাকা শ্যামলিকে সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি হিসেবে পেতে চায়।

শনিবার সন্ধ্যায় সখিপুর বাজারে চায়ের দোকানে ভিড়।  আলোচনা চলছে মহিলা আসনের এই প্রার্থীকে নিয়ে।

এরই মধ্যে আব্দুস সালাম নামের একজন বলেন, বিভিন্ন সময় সাধারণ মানুষদের সঙ্গে মিশে সামাজিক কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করেছেন।  তিনি শরীয়তপুরের সংরক্ষিত মহিলা আসনে সংসদ সদস্য হলে সাধারণ মানুষ উপকৃত হবে।

নিজের অবস্থান তুলে ধরে রওনক বিশাকা শ্যামলী বলেন, সংরক্ষিত আসনে আমাকে মনোনয়ন দিলে শরীয়তপুরের মানুষের আর্থসামাজিক উন্নয়ন, সাংস্কৃতিক উন্নয়ন ও জীবনমান উন্নয়নে কাজ করব।  নারীদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা নিশ্চিত, রাজনৈতিক ও সাধারণ মানুষকে সঙ্গে নিয়ে আমি সবার উন্নয়নে কাজ করব।

তিনি আরও বলেন, দেশের জন্য কাজ করতে সংরক্ষিত আসনে নির্বাচন করব। আমি শিল্পী এত পড়াশোনা করেও শুধু শিল্পের জন্য নিজেকে নিবেদিত করেছি দেশকে ভালেবেসে।  আর রাজনীতি করেছি শুধু দেশ ও দেশের মানুষকে ভালোবেসে।

এবিএন/সা.তুহিন/জসিম/রাজ্জাক

এই বিভাগের আরো সংবাদ