পলাশবাড়ীতে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে হত্যার চেষ্টা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১১:৩১

গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে যৌতুকের দাবিতে রিপা আক্তার (২০) নামে এক গৃহবধূকে শারীরিক নির্যাতন করে হত্যার চেষ্টা করার অভিযোগ পাওয়া উঠেছে। 

আশংঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, উপজেলার শিবরামপুর গ্রামের রফিক মিয়ার কন্যা রিপা আক্তার গার্মেন্টসে চাকুরী করা কালে ঢাকার নবাবগঞ্জের হঠাৎপাড়া গ্রামের শফি পোস্তদারের ছেলে রুহুল আমিন (২৫) এর সাথে ২ বছর আগে বিবাহ হয়। 

বিয়ের ২ মাস পর থেকে রিপার স্বামী ও তার পরিবার যৌতুক দাবি করে আসছিল। 

রিপার গরীব বাবা মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে গ্রামের জমি বিক্রি করে জামাই রুহুল আমিনের হাতে দফায়-দফায় ৩ লক্ষ টাকা যৌতুক প্রদান করে। 

এতে জামাই রুহুল আমিন সন্তুষ্ট না হওয়ায় রিপাকে প্রায় দিনই যৌতুকের জন্য চাপ প্রয়োগ করে তার উপর বিভিন্ন 

শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালিয়ে আসছিল। রিপা বর্তমানে গাজীপুর আশুলিয়া এলাকায় মেরিডিয়ান গার্মেন্টস ফ্যাক্টরীতে চাকুরী করার সুবাদে আশুলিয়া এলাকার একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছিল। 

সেখানে বিভিন্ন সময় ও তারিখে রিপার উপর শারীরিক নির্যাতন চালায় স্বামীসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা। 

এরই ধারাবাহিকতায় গত রোববার সকাল থেকে রিপা উপর আবার নির্যাতন চালায় স্বামী রুহুল আমিন, চাচা শ্বশুর আনোয়ার হোসেন, চাচী শ্বাশুরী চায়না বেগম ও তার মেয়ে রুমি গলায় ও মুখে গামছা দিয়ে পেচিয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গা মারপিট করে বেদনাযুক্ত ফুলা জখম করে হত্যার চেষ্টা করে।

সংবাদ শুনে রিপা মা রাবেয়া বেগম গত সোমবার গাজীপুর আশুলিয়ার ভাড়া বাসা থেকে  উদ্ধার নিয়ে এসে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। 

এ ব্যাপারে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। 

এবিএন/আরিফ উদ্দিন/গালিব/জসিম
 

এই বিভাগের আরো সংবাদ