আজ পার্বত্য চট্রগ্রামের মন্ত্রী বীর বাহাদুরের নাগরিক সংবর্ধনা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ১৬:১০

বান্দরবান ৩০০ নং আসন থেকে পরপর ৬বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য পার্বত্য চট্রগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নব নিযুক্ত মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং সংবর্ধনা নিতে সম্মত হলেও ৬টির বেশি তোরণ স্থাপনে রাজী নন।

এর পরেও তিনি পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্তি পাওয়ায় আজ শুক্রবার (১১ জানুয়ারি) বিকেল ৪ টায় বান্দরবান শহরের রাজার মাঠে বান্দরবানবাসী ও জেলা আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গসংগঠন  এই নাগরিক সংবর্ধনার আয়োজন করেছেন।

বান্দরবানের জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি একেএম জাহাঙ্গির জানান, বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে মন্ত্রীর আগমনের পথে দেড় শ’ তোরণ নির্মাণের খবর জানতে পেরে মন্ত্রী বীর বাহাদুর জেলা আওয়ামীলীগ কে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন এই সংবর্ধনাকে উপলক্ষ্য করে ৬টির বেশি তোরণ যাতে নির্মাণ না করা হয়। তিনি জানান, এ অবস্থায় তোরণ নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিতে হয়েছে আয়োজকদের।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ, বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়, জেলা আওয়ামী লীগ, বান্দরবান পৌরসভা এবং ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে প্রস্তাবিত তোরণ ছাড়া অন্যদের মন্ত্রীর ইচ্ছার কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে গত ৩ দিন আগে।

 নতুন মন্ত্রীসভা গঠনের পর বিভিন্ন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের সমর্থকরা তাদের নিয়ে মাতামাতির এই সময়ে পার্বত্য প্রতিন্ত্রী বীর বাহাদুরের এমন সিদ্ধান্ত আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনসমূহের নেতাকর্মীদের কিছুটা আহত করলেও জেলার সচেতন মহল এতে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০১৪ সালের নির্বাচনে ৫ মবারের মতো সাংসদ নির্বাচিত হয়ে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী নিযুক্ত হবার পর তাকে দেওয়া নাগরিক সংবর্ধনাকে উপলক্ষ্য করে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম ও বান্দরবান জেলায় শতাধিক তোরণ নির্মাণ করা হয়। এতে তিনি ব্যাপক সমালোচিত হন। ফলে এবার তিনি আগে ভাগেই আয়োজকদের সতর্ক করে দিয়েছেন।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ দাবি করেন, আয়োজকরা না চাইলেও ব্যক্তিগতভাবে ব্যাপক জনপ্রিয় এই নেতাকে সম্মান জানাতে বিভিন্ন এলাকা ও ১২ টি জনগোষ্ঠীর মানুষ কারো অনুমতি ছাড়াই নিজস্ব উদ্যোগে তোরণ নির্মাণ করে থাকে। এবার যাতে তা না ঘটতে পারে সেদিকে খেয়াল রাখা হয়েছে।


এবিএন/আব্দুর রহিম/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food