গাজীপুরের নুহাশ পল্লীতে হুমায়ূন আহমেদের জন্মবার্ষিকী পালিত

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২০:১৪

গাজীপুরের পিরুজালী গ্রামে হুমায়ূন আহমেদের নুহাশ পল্লীতে গতককাল রাত ১২টা ১ মিনিটে মোমবাতি প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের ৭০ তম জন্মবার্ষিকী পাালিত হয়েছে।

এদিন সকালে প্রয়াত হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন, তাদের দুই ছেলে নিশাদ ও নিনিতসহ স্বজন এবং ভক্তদের নিয়ে নুহাশ পল্লীতে কেক কাটেন। এর আগে হুমায়ূন আহমেদের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন, কবর জিয়ারত ও আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করেন।

গাজীপুর সদর উপজেলার পিরুজালী এলাকায় মঙ্গলবার (১৩ নভেম্বর) নুহাশ পল্লীতে হুমায়ুন আহমেদের জন্মদিন পালন করা হয়েছে। প্রথমে রাত ১২টা ১ মিনিটে পুরো নুহাশ পল্লীতে ২ হাজার ৫০০ মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়।

হুমায়ূন আহমেদের নুহাশ পল্লীর প্রধান গেটের রাস্তা কেটে ও তাতে খুঁটি পুঁতে প্রতিবন্ধকতা তৈরীর অভিযোগ করা হয়েছে। নুহাশপল্লীর ব্যবস্থাপক সাইফুল ইসলাম বুলবুলসহ অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এ অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে হুমায়ূন স্ত্রী মেহের অফরোজ শাওন বলেন, হুমায়ূন আহমেদ আছে এ গাজীপুরে নুহাশ পল্লীতে। হুমায়ূন আহমেদের আলোয় গাজীপুর আলোকিত হয়ে আছে। এক অর্থে বাংলাদেশ আলোকিত হয়ে আছে। দূর দুরান্ত থেকে ভক্ত যারা আসেন, তারা সবসময় রাস্তার কথাটা বলেন। প্রতিবছর বর্ষায় রাস্তা ভেঙ্গে যায়। এ েিদক হুমায়ূন ভক্তদের দিকে তাকিয়ে হলেও সংশ্লিষ্টদের নজর দেয়া উচিত।

সাইফুল ইসলাম বলেন, বন বিভাগের কিছু জায়গা নুহাশপল্লীর দখলে রয়েছে বলে স্থানীয় বন বিভাগের কর্মকর্তারা দাবী করেন। তাদের দাবীর প্রেক্ষিতে মাপজোঁক করে তারের প্রাচীর দিয়ে আলাদা করে দেয়া হয়েছে। কিন্তু বন বিভাগ তাদের জায়গা দাবী করে নুহাশ পল্লীর প্রধান গেটের সামনে ড্রেন খুঁড়ে ও খুঁটি পুঁতে দর্শনার্থীদের যাতায়াতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে।

১৯৪৮ সালের ১৩ নভেম্বর নেত্রকোনার কেন্দুয়া থানার কুতুবপুর গ্রামে জন্মগ্রহন করেন হুমায়ুন আহমেদ। দূরারোগ্য ক্যান্সারে ভুগে ২০১২ সালের ১৯ জুলাই তিনি মৃত্যুবরন করেন। তাঁকে গাজীপুরের নুহাশ পল্লীতে তাকে সমাহিত করা হয়।


এবিএন/নুরুল আমীন সিকদার/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ