নরসিংদীর দুই ‘জঙ্গি আস্তানায়’ অভিযান শুরু

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ১২:১১ | আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ১২:১৬

নব্য জেএমবির আস্তানা সন্দেহে নরসিংদীর মাধবদী ও শেখেরচরে দুটি বাড়িতে অভিযান শুরু করেছে পুলিশের সোয়াট ও কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ইউনিট (সিটিটিসি)। 

আজ মঙ্গলবার (১৬ অক্টোবর) সকাল ১১টার দিকে তারা এ অভিযান শুরু করে। ঘটনাস্থলে ১০ রাউন্ড গুলির শব্দ পাওয়া গেছে। ইতোমধ্যে জঙ্গি আস্তানায় চিকিৎসকসহ অ্যাম্বুলেন্স প্রবেশ করেছে বলে জানা গেছে।

এর আগে আজ সকালে নরসিংদীর দুটি আস্তানা পরিদর্শন করেন সিটিটিসির প্রধান মনিরুল ইসলাম। ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘জঙ্গিরা বাড়িটিতে অবস্থান করছে। এ পর্যায়ে আমরা তথ্য সংগ্রহ ও রেকি করে ওই ভবনের বাসিন্দাদের সরিয়ে নিয়ে অভিযানের প্রস্তুতি নিয়েছি। খুব তাড়াতাড়ি সোয়াত অভিযান শুরু করবে। এখনি অভিযান শুরু করবে।’

তিনি বলেন, অভিযানের শুরুতে তাদের সঙ্গে নেগোসিয়েট করে আত্মসমর্পণে বাধ্য করার চেষ্টা করব। তার পর যদি আত্মসমর্পণ না করে তাহলে পরবর্তী সময়ে অবস্থা অনুযায়ী আমরা আইনগত ব্যবস্থা যেটা সেটা নিশ্চিত করার ব্যবস্থা করব।’ 

পুলিশের এ কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘অভিযান পরিচালনার ক্ষেত্রে আমরা গুরুত্ব দেব আশপাশে যেসব বসবাসকারী আছেন, সম্মানিত অধিবাসীরা আছেন, তাদের যাতে কোনো ধরনের ক্ষতি না হয়। সেই বিষয়টি মাথায় রাখা হচ্ছে। পাশাপাশি আমাদের অভিযানের দল সোয়াত, তাদের নিরাপত্তাটা নিশ্চিত করেই আমরা অভিযান পরিচালনা করব।’

পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, আশপাশের বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়ার পর দুই বাড়ির গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। ফায়ার ব্রিগেডের গাড়ি এনে রাখা হয়েছে দুই বাড়ির কাছাকাছি।

সকালে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দলের সদস্যদেরও সেখানে উপস্থিত হতে দেখা গেছে। পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি আবদুল্লাহ আল মামুন এবং নরসিংদীর সিভিল সার্জনও উপস্থিত হয়েছেন মাধবদীতে।

গতকাল সোমবার রাত ১০টা থেকে মাধবদী পৌরসভার ছোট গদাইয়ের চর গাঙপাড়ের হাজি মো. আফজাল হোসেনের সাততলা ‘নিলুফা ভিলা’ এবং তার ২ কিলোমিটার দক্ষিণে শেখেরচরের ভগীরতপুরের কাপড় ব্যবসায়ী বিল্লাল মিয়ার ৫ তলা বাড়ি দুটি ঘিরে রাখে পুলিশ, সোয়াত ও কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের সদস্যরা। এলাকাটি বাংলাদেশের বস্ত্র শিল্পের জন্য বিখ্যাত।

সকাল থেকে ওই দুটি এলাকার ৫০০ গজের মধ্যে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। গণমাধ্যমকর্মীদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলার নির্বাহী হাকিম মোহাম্মদ শাহ আলম।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খায়রুল হাসান (শিবপুর সার্কেল) জানান, মাধবদীর ৭ তলা নিলুফা ভিলার একতলা থেকে তিনতলা পর্যন্ত ‘মিফতাহুল জান্নাহ মহিলা মাদ্রাসা’। ওই ভবনের একটি বাসায় ৭  জঙ্গি রয়েছে। পুলিশ এটা গোপন সূত্রে জানতে পারে। তার পরই বাড়িটি ঘিরে রাখা হয়।

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ