আশানুরুপ বিচার হয়নি, গ্রেনেড হামলায় নিহত মাহাবুবের বাবা মা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১০ অক্টোবর ২০১৮, ২১:০৫

২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলার রায়ের আগের দিন থেকে রান্না হয়নি তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত দেহরক্ষী নিহত খোকসার মাহাবুব রশিদের বাবার বাড়িতে।  আজ বুধবার সকাল থেকে প্রতিবেশীর বাড়ির ছোট একটি টেলিভিশনের সামনে নাতিকে (মেয়ের মেয়ে) নিয়ে নিহতের মা হাসিনা খাতুন ও অসুস্থ্য বাবা হারুন অর রশিদ অপেক্ষায় ছিলেন।

১৪ বছর ৪৮ দিন পর ছেলে হত্যার রায় ঘোষনা খবর শুনে পুরোপুরি খুশি হতে পারেনি তারা।  রায়টি একটি দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করবে বলে আশা করেছিলেন এই বৃদ্ধ দম্পতি।  আশা করেছিলেন সব আসামীর ফাঁসি হবে।  যাদের ফাঁসি হয়নি তাদের বিরুদ্ধে আপিল করার দাবি করেন তারা।  তবে ফাঁসির রায় কার্যকর হলে আমাদের মত খুনিদের বাবা মা স্ত্রী সন্তানরা বুক খালি হওয়ার ব্যথা বুঝবে। তারা খুনিদের ফাঁসি কার্যকর দেখে মরতে চান।   

মা হাসিনা খাতুন সম্প্রতি চোখ অপারেশন করিয়েছেন ভালো দেখতে পারে না।  চোখে সব সময় ব্যাথা অনুভব করেন।  ছেলে মাহাবুব রশিদসহ অন্যদের হত্যার রায় শুনে ডুকরে কেঁদে উঠেছিলেন। নিজের শরীরের অবস্থার কথা বলে তাকে শান্ত করেন বৃদ্ধ হারুন অর রশিদ। তবে তারা আল্লার কাছে হাত তুলে শুকরিয়া আদায় করেছেন। কিছুটা হলেও বিচার পাওয়া গেছে এই ভেবে।

মা হাসিনা খাতুন জানান, সাংবাদিকদের মুখে রায় হওয়ার খবর শোনার পর থেকে গত দুই দিন তিনি আর রান্না করেননি। রড় মেয়ের বাড়ি থেকে আসা খাবার খাচ্ছেন। আজ রায় শোনার পর থেকে মন ভালোনেই তাই আর রান্না করবে না।

এবিএন/সুমন কুমার মন্ডল/জসিম/রাজ্জাক

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food