ধরলায় পানি বৃদ্ধি: হুমকিতে বিভিন্ন স্থাপনা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১:২২

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় ধরলা নদীর ভাঙন ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। নির্মাণাধীন ধরলা সেতুর পশ্চিম প্রান্ত থেকে নদীর স্রোতে সোজাসুজি সোনাইকাজী গ্রামের ভূখণ্ডে আঘাত করার কারণে দুই দিনে ধরলার ভাঙনে নদী নিকটবর্তী সোনাইকাজী গ্রামের বেড়িবাঁধ, আবাদি জমি, বাগান, বাঁশঝাড়, বসতভিটাসহ নদীতে বিলীন হয়ে গেছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, নির্মাণাধীন ধরলা সেতুর এক কিলোমিটার দক্ষিণে সোনাইকাজী এলাকায় ধরলা নদীর ভাঙন তীব্র আকার ধারণ করেছে। নির্মাণাধীন সেতুর এ্যাপ্রোচ সড়কে বাধাপ্রাপ্ত হয়ে নদীর তীব্র স্রোতে সোজাসুজি এই এলাকায় আছড়ে পড়ছে। ফলে অব্যাহত ভাঙনের ফলে সোনাইকাজীর ১৫টি পরিবারের বসতভিটা নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। মারাত্মক ভাঙনে হুমকির মুখে রয়েছে সোনাইকাজী মসজিদ, রামপ্রসাদ ও প্রাণকৃষ্ণ গ্রাম, মরানদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা ও প্রতিষ্ঠান।

ওই এলাকার হাছেন আলী জানান, দশ ভাইয়ের পয়ত্রিশ বিঘা জমি ছিল। নদী ভাঙনে সবকিছু বিলীন হয়ে গেছে। এখন আমরা নিঃস্ব।

এ প্রসঙ্গে কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম জানান, ধরলাসহ কুড়িগ্রামের বেশ কয়টি নদ-নদীর পানি কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে এখনও বিপদসীমা অতিক্রম করেনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবেন্দ্র নাথ উরাও জানান, ধরলা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ভাঙন বৃদ্ধির খবর পেয়েছি। পরিদর্শন করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এবিএন/ বিশ্বনাথ রায়/জসিম/নির্ঝর

এই বিভাগের আরো সংবাদ