সাপাহারে রোপা-আমনের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:৫২

নিবিড় শরৎকালীন ফসল উৎপাদন কর্মসূচী ২০১৮-১৯ অর্থবছরের আওতায় খরিপ-২ মৌসুমে রোপা-আমন আবাদের জন্য অনুকূল আবহাওয়া, আধূনিক ও উন্নত প্রযুক্তিগত চাষাবাদ আর রোগ-বালাইমুক্ত পরিবেশ থাকায় নওগাঁর সাপাহারে রোপা-আমনে বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে।

উপজেলা কৃষি বিভাগ সুত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমের জন্য উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে ১৬১৫০ হেক্টর জমিতে রোপা-আমন চাষাবাদ হয়েছে। গত আউশ মৌসুমে খরচ ও কষ্ট করে শুধু ধান উৎপাদনই করেছি তবে, পাইনি দাম।

 তাই এ মৌসুমী ধান আবাদের ওপরই নির্ভর করবে কৃষকের জীবন-জীবিকা। রোপা-আমন আবাদে কৃষি-স¤প্রসারণ অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে প্রযুক্তি হস্তান্তর, প্রশিক্ষণ ও রোগ-বালাই দমনে যথাসময়ে প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদানের পাশাপাশি আউশ মৌসুমের মতো কৃষি প্রণোদনার জন্য উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নের বিভিন্ন মোড়ে সন্ধ্যাকালীন আলকফাদের ব্যবস্থা সহ উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগণ কৃষকদের পরামর্শ প্রদান করছেন।

সাপাহার উপজেলা কৃষি অফিসার এএফএম গোলাম ফারুক হোসেন জানান, “যেহেতু আমন মৌসুমী ধানের দাম ভালো পাওয়া যায়। এসময়ে বৃষ্টির পানিতে নাইট্রোজেন থাকায় ক্ষেতে ইউরিয়া কম লাগার কারণে কৃষককূলে ছিল উৎসাহ-উদ্দিপনা।

সেই সাথে উন্নতজাত আবাদ, অনুকূল আবহাওয়া আর পূর্বে থেকেই রোগ-বালাইমুক্ত আবাদি পরিবেশ বিরাজ করায় উপজেলার কৃষককূলে রোপা-আমন আবাদে উৎসাহ-উদ্দিপনার প্রেক্ষাপটে উঁকি দিচ্ছে বাম্পার ফলনের সমূহ-সম্ভাবনা”।

উপজেলা কৃষি অফিসের সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষন অফিসার আতাউর রহমান সেলিম জানান, “রোপা-আমন আবাদি মৌসুমে প্রয়োজন মত বৃষ্টিপাত, অনুকূল আবহাওয়া সেইসাথে আধূনিক ও উন্নত জাত আবাদ এবং পূর্বে থেকেই রোগ-বালাইমুক্ত পরিবেশ গড়ার কারণে আবাদ ভালো হয়েছে। গতবারের তুলনায় এবার ফলনও হয়েছে অনেক ভালো। রয়েছে বাম্পার ফলনের সমূহ-সম্ভাবনা”।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে মাঠের পর মাঠ সবুজের অরন্যে বাতাসে দোল খাচ্ছে রোপা-আমন ধান।


এবিএন/নয়ন বাবু/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ