গাজীপুরে পুলিশ ও বিএনপির মধ্যে সংঘর্ষ: আটক ৯

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:১২

গাজীপুরে বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসুচী পালনকালে পুলিশের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ৯ বিএনপি নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। আহত হয়েছে পুলিশসহ কমপক্ষে ২০ জন। আজ সোমবার সকাল ১১টার দিকে শহরের রাজাবাড়ী সড়কে এ ঘটনা ঘটে।কাপাসিয়া উপজেলায় ১১ ইউনিয়নে কোন প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।

কাপাসিয়া উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন সেলিম জানায় রিয়াজ ভাইয়ের গ্রেফতারের কথা শুনেছি। দলের সাথে আলোচনা করে পরে সিদ্বান্ত নেওয়া হবে।

বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসুচীর অংশ হিসেবে গাজীপুর জেলা ও মহানগর বিএনপির আয়োজনে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করছিল নেতাকর্মীরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি ও চিকিৎসার দাবিতে গাজীপুর মহানগর ও জেলা বিএনপির যৌথ উদ্যোগে জেলা বিএনপি কার্যালয়ে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে বিভিন্ন এলাকা থেকে নেতাকর্মীরা মিছিলসহ অংশ নেয়। এক পর্যায়ে মানবন্ধনে অংশগ্রহণকারীরা মিছিল শুরু করে।

গাজীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি একেএম ফজলুল হক মিলন জানান, ওই মিছিলে পুলিশ অতর্কিতে হামলা চালায়। এসময় বিএনপি নেতা প্রয়াত ব্রিগেডিয়ার আ স ম হান্নান শাহ এর ছেলে শাহ্ রিয়াজুল হান্নান ও গাজীপুর সিটি করর্পোরেশনের কাউন্সিলর হান্নান মিয়া হান্নুসহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীকে পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় বিএনপির কমপক্ষে ১৫ নেতাকর্মী আহত হয়। তাদের বিভিন্ন ক্লিনিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

গাজীপুর জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোলাম সবুর জানান, আইনশৃঙ্খলা অবনতির আশঙ্কায় শহরে পুলিশ দায়িত্ব পালন করছিলো। এসময় বিএনপির মিছিল থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে ককটেল ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হয়। পরে পুলিশ আত্মরক্ষার্থে হামলাকারীদের ওপর লাঠি চার্জ করে।

এতে উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এসময় কমপক্ষে চার পুলিশ সদস্য আহত হয় এবং ৯ জন বিএনপি নেতাকে আটক করা হয়। আহতদের স্থানীয় হাসপাতাল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। আটকের সময় মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে পালিয়ে যায়।


এবিএন/নুরুল আমীন সিকদার/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ