কালিহাতীতে ছাত্রলীগ নেতা শফি সিদ্দিকীর শাহাদৎ বার্ষিকী

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:৩৯

টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক শফি সিদ্দিকী হত্যার বিচার ২৩ বছরেও হয়নি।

আজ ১০ সেপ্টেম্বর (সোববার) শফি সিদ্দিকীর ২৩ তম শাহাদৎ বার্ষিকী কালিহাতীতে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে শহীদের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন, স্মরণ সভা ও গণ ভোজ।

টাঙ্গাইলের সাবেক তুখোড় ছাত্রনেতা শফি সিদ্দিকীর কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোজহারুল ইসলাম তালুকদার, সহ-সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার লিয়াকত আলী, সাধারন সম্পাদক আনছার আলী, যগ্মসাধারন সম্পাদক আনোয়ার মোল্লা ও আওয়ামী নেতা আবু নাসের । এসময় আওয়ামী লীগ নেতারা তার ভক্ত-অনুসারীদের নিয়ে শফি সিদ্দিকীর পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেন।

শফি সিদ্দিকীর মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে পাথালিয়া কলিম উদ্দিন আব্বাছ আলী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে স্মরণ সভার আয়োজন করে শহীদ শফি সিদ্দিকী স্মৃতি সংসদ। শফি সিদ্দিকীর বড় ভাই রকিবুল হোসেন সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে স্মরণ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন কালিহাতী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোজহারুল ইসলাম তালুকদার।
বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার লিয়াকত আলী, সাধারন সম্পাদক আনছার আলী বিকম, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন মোল্লা,এফবিসিসিআই এর পরিচালক ও আওয়ামী লীগ নেতা আবু নাসের, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ তোতা, উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার মীর মিজানুর রহমান মজনু প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা।

স্মরণ সভার বক্তারা বর্তমান সরকারের নিকট শফি সিদ্দিকী হত্যার আসামীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। পরিবারের লোকজন  ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন দীর্ঘ ২৩ বছরেও এই হত্যার বিচার না হওয়া অত্যন্ত দুঃখজনক। আমরা মর্মাহত।

এরআগে কালিহাতী উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ শফি সিদ্দিকীর কবর জিয়ারত করেন। স্মরণ সভা শেষে গণভোজে অংশগ্রহণ করেন কয়েক হাজার মানুষ। 

উল্লেখ্য ১৯৯৫ সালের ১০ সেপ্টেম্বর কালিহাতী উপজেলার বাংড়া ইউনিয়নের পাথালিয়া মাঠে এক জনসভায় টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক শফি সিদ্দিকীকে নির্মমভাবে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। জনশ্রুতি রয়েছে শফি সিদ্দিকীর দৃঢ় নেতৃত্ব ও জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বীত হয়ে দলীয় ষড়যন্ত্রের কারনে তিনি নিহত হন।

এবিএন/তারেক আহমেদ/জসিম/নির্ঝর

এই বিভাগের আরো সংবাদ