বড়পুকুরিয়ায় কয়লা উত্তোলন শুরু

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:৪৫ | আপডেট : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:১৪

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি থেকে পুনরায় কয়লা উত্তোলন শুরু হয়ছেে। ৩ মাস বন্ধ থাকার পর শুক্রবার দিনগত রাত সাড়ে ৯ টা থেকে আজ শনিবার সকাল ৬ ট ৫২৯দশমিক ৫০০ মেঃ টন কয়লা ভূ- গর্ভ  থেকে উত্তোলিত হয়। দুই থেকে তিন দিনের মধ্যে ১২ থেকে ১৫শ মেঃ টন কয়লা উত্তোলন হবে। এর পর থেকে প্রতি দিন ২ হাজার থেকে ২২শ মেঃ টন কয়লা উত্তোলন হবে। এই কয়লা উত্তোলন এর মধ্য দিয়ে সকল জল্পনা-কল্পনার অবসন হল। ওই দিন খনির ১৩১৪ নম্বর কোল ফেইজ হতে পরীক্ষমূলকভাবে কয়লা উত্তোলন শুরু হয়।

আজ শনবিার দুপুরে ফোনে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. ফজলুর রহমান এসব কথা জানান।
খনির মহাব্যবস্থাপক (মাইনিং) সাইফুল ইসলাম সরকার বলেন, কয়লার অভাবে বন্ধ হয়ে যাওয়া বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের তিনটি ইউনিট দ্রুত চালু করতে জোর তৎপরতা চলছে।

এর আগে গত ১৫ জুন খনির উৎপাদনশীল ১২১০ নম্বর কোল ফেইজের উৎপাদনযোগ্য কয়লার মজুদ শেষ হয়ে যাওয়ায় ১৬ জুন থেকে খনির কয়লা উত্তোলন বন্ধ হয়ে যায়। একই সময় খনির কোল ইয়ার্ড ও কয়লাভিত্তিক ৫২৫ মেগাওয়াট বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে কয়লার মজুদ শূন্যের কোটায় নেমে আসে। এতে কয়লার অভাবে গত ২২ জুলাই বড়পুকুরিয়ায় বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়। ফলে উত্তরাঞ্চলের ৮ জেলায় বিদ্যুতের ভয়াবহ লো-ভোল্টেজ ও লোডশেডিং সমস্যা পড়তে হয়।   

গত ২৬ আগস্ট বিকেলে খনির প্রশাসনিক ভবনে পিডিবি, চীনা ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সিএমসি-এক্সএমসি কনসোর্টিয়াম ও বিসিএমসিএল’র মধ্যে অনুষ্ঠিত ত্রিপক্ষীয় বৈঠক হয়। বৈঠকে আগামী ১০ সেপ্টেম্বর বড়পুকুরিয়ায় কয়লা উত্তোলন শুরুর একটি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সিদ্ধান্তটি ইতিমধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে সরকার তথা জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় এবং পেট্রো-বাংলা কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। কয়লা উত্তোলনের পেছনে শ্রমিক কর্মচারিদের অনেক অবদান রয়েছে। এ ভাবে সরকারের উৎপাদন মুখী প্রতিষ্ঠান গুলোতে মনোযোগ দিলে দেশের রাজস্ব বাড়বে।

এবিএন/এম এ জললি সরকার/জসিম/রাজ্জাক

এই বিভাগের আরো সংবাদ