শেরপুরে ঐতিহ্যবাহী লাঠি খেলা অনুষ্ঠিত

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৪:৩৪

বগুড়ার শেরপুরের শালফা গ্রামের চেয়াম্যান ভিটায় গতকাল বিকেলে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠি খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে হাজার হাজার নারী পুরুষ উপস্থিত হয়ে খেলা উপভোগ করেন। কিন্তু সরকারের সুনজর না থাকায় বিলীন হওয়ার পথে এই জনপ্রিয় লাঠি খেলা।

জানা যায়, উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের শালফা গ্রামে প্রতি বছর লাঠি খেলার আয়োজন করেন শালফা গ্রামের মৃত আলতাফ আলীর ছেলে কমর উদ্দিন ও মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে সাজাহান আলী। এর আগে খেলার আয়োজন করছিলেন মৃত জসিম উদ্দিন ও নুরু আকন্দ।

তারা মারা যাওয়ার পর কমর ও সাজাহান নিয়মিত এই খেলার আয়োজন করছেন। এই খেলাটি গ্রামাঞ্চলে জনপ্রিয় হলেও সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা না থাকায় তা এখন প্রায় বিলীনের পথে। লাঠি খেলা দেখতে আসা অনেকেই বলেন, আমরা ছোটবেলা থেকেই এই গ্রামে খেলা দেখতে আসি। পুরাতন অনেক খেলোয়ার মৃত্যু বরণ করায় এবং অর্থ সরবরাহ না থাকায় এখন আর আগের মত খেলা হয়না। তবুও এই খেলার কথা শুনলে আমরা ছুটে আসি খেলা দেখতে।

আয়োজনকারী কমর উদ্দিন ও সাজাহান আলী বলেন, এখনকার ছেলেরা লাঠি খেলা কি এটাই যানেনা। অনেক কষ্টে আমরা এই খেলার আয়োজন করেছি। মানুষ এত টাকা আজে বাজে খরচ করে কিন্তু আমাদের খেলার জন্য কেউ এগিয়ে আসেনা। সরকার যদি এই খেলার প্রতি দৃষ্টি দিত তাহলে ফুটবল ক্রিকেটের চেয়েও অনেক জনপ্রিয় হতো এই লাঠি খেলা।

এ ব্যাপারে শেরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, গ্রামীন ঐতিহ্যবাহী বিভিন্ন খেলাধুলা ধরে রাখতে সরকার নানা পরিকল্পনা গ্রহন করেছেন। তাই বিভিন্ন দিবসে আমরা লাঠি খেলাসহ গ্রামীন অন্যান্য খেলার আয়োজন করে থাকি। যদি কেউ গ্রামাঞ্চলে এই ধরনের খেলার আয়োজন করে থাকেন তারা আমাদের জানালে সর্বাত্বক সহযোগিতা করার চেষ্টা করবো।

 

এবিএন/শহিদুল ইসলাম শাওন/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ