পলাশবাড়ীতে ঝুঁকিপূর্ণ সেতু দিয়ে চলাচলে দূর্ঘটনার আশঙ্কা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৮:৪১

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার ঢোলভাঙ্গা-আমলাগাছী সড়কের ডাকেরপাড়া-ছোটভগবানপুর এলাকায় কুটিরঘাট নলেয়া নদীর উপর একটি সেতু চরম ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।  সেতুর দুই পাশেই পাটাতন (ডেস্ক স্লাব) ও রেলিং ভেঙ্গে গেছে।

ফলে মানুষসহ বিভিন্ন যানবাহন চরম ঝুঁকি নিয়ে সেতুটির উপর দিয়ে চলাচল করছে।  সেতুটির উপর দিয়ে ভারি কোন যানবাহন চলাচলের সময় যে কোন মুহুর্তে সেতুটি ভেঙ্গে গিয়ে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই এই সেতুস্থলে একটি নতুন সেতু নির্মাণের দাবী করছে এলাকার ভুক্তভোগীরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সেতুটি উপজেলার বেতকাপা ও মহদীপুর ইউনিয়নের সীমানায় পড়েছে। প্রায় দু’বছর আগে পাথরবোঝাই ট্রাক চলাচলের সময় সেতুটির উত্তর ও দক্ষিণ প্রান্তে পাটাতনের (ডেস্ক স্লাব) অনেকাংশ ভেঙ্গে যায়।  এরপর হতে সেটি আর মেরামত করা হয়নি।  সেতুটির উপর দিয়ে বাস, ট্রাক, ট্রাক্টর, ট্রলি, সিএনজি, অটোরিকসা-ভ্যান, সাইকেল-মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন ধরনের ভারী যানবাহন চলাচল করে।  

ঝুঁকিপূর্ণ এই সেতুটির কারণে প্রায়ই দূর্ঘটনার শিকার হয় মানুষ।  প্রতিদিন এই ঝুঁকিপূর্ণ সেতুটির উপর দিয়ে উপজেলার মহদীপুর, বরিশাল, পবনাপুর ও মনোহরপুর ইউনিয়নসহ আশেপাশের কয়েকটি ইউনিয়নের স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থী-শিক্ষকসহ প্রায় ১২ হাজার মানুষ চলাচল করে।

আজ মঙ্গলবার (৪ সেপ্টেম্বর) সরেজিমনে দেখা যায়, সেতুটির উত্তর ও দক্ষিণ প্রান্তে দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেতে মানুষ সতর্ক করার জন্য ভেঙ্গে যাওয়ার সেতুর অংশের চারপাশে স্থানীয়রা মাটি ও গাছের ডালপাল দিয়েছেন। সেতুটির দুই পাশেরই রেলিংয়ের বেশি ভাগ অংশ ভেঙ্গে উন্মুক্ত হয়ে আছে।  কোন দূর্ঘটনা ঘটলে যে কোন যানবাহন সরাসরি নদীতে গিয়ে পড়বে।

মহদীপুর ইউপি চেয়ারম্যান তৌহিদুল ইসলাম মন্ডল বলেন, সেতুটির উপর দিয়ে মানুষকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে।  উপজেলা পরিষদের সমন্বয় সভায় সেতুটি নির্মাণের বিষয়ে সবাইকে জানিয়েছি। দ্রুত এখানে নতুন সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হওয়া দরকার। তা না হলে দূর্ঘটনায় যে কোন সময় প্রাণহানি ঘটতে পারে।

উপজেলা প্রকৌশলী তাহাজ্জদ হোসেন জানান, সেতুটি নির্মাণের জন্য টেন্ডারসহ ওয়ার্কঅর্ডার হয়েছে। খুব দ্রুত নতুন সেতু নির্মাণের কাজ শুরু করা হবে।

এবিএন/আরিফ উদ্দিন/জসিম/রাজ্জাক

এই বিভাগের আরো সংবাদ