ফুলবাড়ীয়ায় প্রেমিক যুগলের আত্নহত্যা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৬:০৭

আত্নহত্যার আগে মেয়েটি তার হাতে লিখে গেছে, বাঁচলেও এক সাথে মরলেও এক সাথে। ছেলেটি মারা গেছে ভোর বেলায় মেয়েটি দুপুরে। দুজনেই মারা গেছে ফাঁসিতে। অকালে ঝড়ে যাওয়া প্রেমিক যুগলের বাড়ী ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলায়।

এলাকাবাসী জানায় উপজেলার নাওগাঁও ইউনিয়নের সাইফুল ইসলামের পুত্র পলাশ আজ মঙ্গলবার ভোরে নিজ ঘরে ধর্নার সাথে রশি দিয়ে ফাঁসিতে ঝুলে আত্নহত্যা করে।

 এ আতœহত্যার কথা শুনেই পাশের গ্রাম রাঙামাটিয়া ইউনিয়নের হাতিলেইটের  প্রবাসী নূরুল ইসলামের মেয়ে আরিফা খাতুন ঘরের ধর্নার সাথে ওড়না দিয়ে আতœহত্যা করে।

 আতœহত্যার আগে আরিফা তার হাতে লিখে যায়, পলাশ বাঁচলেও এক সাথে মরলেও এক সাথে। এ লেখা নিয়ে প্রেমের বিষয়টি প্রকাশ পায়।

এলাকাবাসী জানায়, তারা দুজনের ছিল পলাশীহাটা স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থী। তাদের দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক থাকলেও ছেলের পরিবার তাদের সম্পর্ক মেনে নিচ্ছিল না। আর এ কারণেই তারা আত্নহত্যার পথ বেছে নেয়।

ফুলবাড়ীয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ কবিরুল ইসলাম জানান, প্রেমিক যুগল আত্নহত্যার বিষয়টি তিনি শুনার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

 

এবিএন/হাফিজুল ইসলাম স্বপন/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ