কুলাউড়ায় বনভূমি জবরকালে পানপুঞ্জির হেডম্যান আটক, মামলা দায়ের

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ৩০ আগস্ট ২০১৮, ১৮:২৯

কুলাউড়া রেঞ্জের নলডরী বিটের আওতাধীন বেগুনছড়া ও লবনছড়া বাঁশ মহাল এলাকায় ফরেষ্টের জায়গা জবরদখল করে পান ঝুম করার চেষ্টার ঘটনায় এক খাসিয়া পুঞ্জির হেডম্যানকে আটক করেছে পুলিশ এবং সরকারী বনজ সম্পদ দখলকারী ২০ জন খাসিয়ার বিরুদ্ধে কুলাউড়া থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে।  আজ বৃহস্পতিবার (৩০ আগস্ট) আটককৃত খাসিয়া হেডম্যান স্ন্যাই লামিন(৪৫)(কে মৌলভীবাজার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

পুলিশ ও বন বিভাগ সুত্রে জানা গেছে, গত ২৫ আগস্ট নলডরী বিটের লবনছড়া বাঁশ মহাল এলাকায় পুটিছড়া পুঞ্জির হেডম্যান স্ন্যাই লামিন খাসিয়ার নেতৃত্বে ২৫/৩০ জন খাসিয়া বাঁশ মহালের বিভিন্ন প্রজাতীর বাঁশ কেটে ও জংঙ্গল পরিষ্কার করে পানের চারা রোপন করে বনভূমি দখল করতে থাকে।  এ খবর বন বিভাগের লোকজন পেয়ে কুলাউড়া রেঞ্জ অফিসার মানিক রঞ্জনদের নেতৃত্বে বনবিভাগের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে খাসিয়াদেরকে বাধা দেয়।  বনবিভাগের বরমচাল বিট অফিসার মো: আহমদ আলী, পিএম আকবর আলীসহ অন্যান্য বন বিভাগের কর্মকর্তা ও কর্মচারী অভিযানের সময় উপস্থিত ছিলেন।  

এ সময় খাসিয়ারা সংঘবদ্ধভাবে বনবিভাগের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদেরকে হামলার চেষ্টা করে।  রেঞ্জ কর্মকর্তা বন বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবহিত করে আসার সময় খাসিয়াদের ফেলে যাওয়া প্রায় লক্ষাধিক টাকার বাঁশ ও ১ টি দা জব্দ করা হয়।  তবে বন বিভাগের হিসাব মতে খাসিয়ারা ৩ একর বনভূমির বাঁশ ও প্রাকৃতিক গাছ গাছালি নষ্ট করার ফলে বন বিভাগের ১০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হয়েছে।

এ ঘটনায় রেঞ্জ অফিসার মানিক রঞ্জন দে বাদি হয়ে পুটিছড়া হেডম্যান স্ন্যাই লামিনসহ  ৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরও ১২ জনসহ মোট ২০ জনের বিরুদ্ধে বুধবার (২৯ আগষ্ট) সন্ধ্যায় কুলাউড়া থানায় মামলা দিলে পুলিশ বুধবার রাতেই অভিযান চালিয়ে পুঞ্জির হেডম্যান স্ন্যাই লামিন খাসিয়াকে আটক করে।
     
এব্যাপারে কুলাউড়া রেঞ্জ অফিসার মানিক রঞ্জন দে জানান, খাসিয়ারা জোরপূর্বক ও বেআইনীভাবে বন বিভাগের জায়গায় পানের ঝুম করার চেষ্টা করলে আমরা বাধা দেই।  এতে তারা আক্রোমান্বিত হয়ে উঠে।  এরপরও আমরা খাসিয়াদের কবল হতে ১৫ একর বনভূমি উদ্বার করতে সক্ষম হয়েছি এবং খাসিয়াদের বিরুদ্ধে কুলাউড়া থানায় মামলা দায়ের করেছি।
     
কুলাউড়া থানার ওসি (তদন্ত) সঞ্জয় চক্রবর্তী জানান, ফরেষ্ট অফিসারকে মারধরের চেষ্টা এবং বনভূমি জবর দখল চেষ্টার অভিযোগে একজন খাসিয়াকে আটক করা হয়েছে।  বাকিদেরও গ্রেফতারে পুলিশ চেষ্টা করছে।
 
 এবিএন/ময়নুল হক পবন/জসিম/রাজ্জাক

এই বিভাগের আরো সংবাদ