বোদায় কমছে না চাল তেলসহ নিত্যপণ্যের দাম

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০১ মার্চ ২০২১, ১৬:৩৮

পঞ্চগড়ের বোদায় বাজার নিয়ে বিড়ম্বনার যেন শেষ নেই। সবজিতে স্বস্তি তো চাল-তেলে অস্বস্তি। সব মিলিয়ে সাধারণ মানুষ পড়েছে বিপাকে। গত কয়েক মাস আগে অতিবৃষ্টিতে বাজারে গিয়ে নাজেহাল হতে হয় মানুষকে। ৮০ টাকা থেকে ১০০ টাকা দরে খেতে হয় সবজি। এবার চলছে চালে আর তেলে অস্বস্তি। হু হু করে বাড়ছে তেলের দাম। এক লিটার সয়াবিনে বেড়েছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা। খোলা সয়াবিনের কদর ছিলো কম। সেই সয়াবিন এখন প্রতি কেজি ১৩০ টাকা। বাজারে গিয়ে অনেকে হতভম্ব হয়ে পড়েন।

গত সপ্তাহে যে সোনালী মুরগী ছিলো ২৫০ টাকা, তা আজ ২৮০ টাকা (প্রতি কেজি)। অথচ এ সোনালী মুরগী ছিলো গত মাস খানেক আগে ১৮০ টাকা (কেজি)। বয়লার বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকা (প্রতি কেজি), যা আগে ছিলো ১১০ থেকে ১২০ টাকা (কেজি)। আসন্ন রমজান ঘিরে খামারিরা সরবরাহ কমিয়ে দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। কারণ রমজানে দাম ও চাহিদা দুই-ই থাকবে।

বোদা বাজারের মুরগী ব্যবসায়ী শাহিনুর জানান, সরবরাহ কম, তাই বয়লার বিক্রি করছি ২০০ টাকা ও সোনালী মুরগীর প্রতি কেজি বিক্রি করছি ২৮০ টাকা। স্বর্ণপারি চাল বিক্রি হচ্ছে ৫০ কেজির বস্তা ২৪০০ থেকে ২৫০০ টাকা, যা দুই মাস আগে ছিলো ২০০০ হাজার টাকা। আঠাইশ ছিলো ২৫০০ টাকা, এখন ২৬০০/২৭০০ থেকে ২৯০০ টাকা। মিনিকেট ছিলো ২৫০০ থেকে ২৪০০ টাকা, এখন বিক্রি হচ্ছে ৩০০০ থেকে ৩১০০ টাকা। বোদা বাজারের চাল ব্যবসায়ী নাজিমউদ্দীন বলেন, “মিনিগেটে চালের দাম বেশী। ভারতীয় চাল পোর্টে প্রতি কেজি পড়ে ৪১ টাকা ৫০ পয়সা। গুটি চাল বিক্রি হচ্ছে ৪৩ থেকে ৪৪ টাকা (প্রতি কেজি)।

সরেজমিনে চালের বাজারে গিয়ে দেখা যায়, সব চালের ৫০ কেজির বস্তায় দাম বেড়েছে ৫০ থেকে ১০০ টাকা। চাল ব্যবসায়ী কোরবান জানান, “চালের দাম কমতে গিয়ে এখন বাড়তির দিকে। গালামাল ব্যবসায়ী হিরন বলেন, “খোলা সয়াবিনের দাম ছিলো ৮৫ টাকা লিটার, যা আজ ১৩০। চিনি ছিল ৬০ টাকা তা বর্তমানে ৭০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

 
এবিএন/লিহাজ উদ্দীন মানিক/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ