গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই সহোদর নিহত

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ আগস্ট ২০১৮, ১৩:৪৬

ঢাকা, ২১ আগস্ট, এবিনিউজ : পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে ঢাকা থেকে নিজের প্রাইভেটকারে করে বাড়ি যাচ্ছিলেন এস.এম আরাফাত হাসান প্রিন্স ও তার ফুফাতো ভাই শিমুল (৪০)।  সঙ্গে ছিলেন প্রিন্সের স্ত্রী মেসকাতই জাহান ফেরদৌসী কেকা (৩০)। কিন্তু মুহূর্তের এক দুর্ঘটনায় তাদের ঈদআনন্দ মাটি হয়ে যায়। বাসের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন প্রিন্স ও শিমুল। আহত হন ফেরদৌসী কেকা।

আজ ২১ আগস্ট (মঙ্গলবার) সকাল ছয়টার দিকে গোপালগঞ্জের ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোপীনাথপুর উত্তরপাড়া এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতের মধ্যে এস.এম আরাফাত হাসান প্রিন্স রূপালী ব্যাংক ঢাকা সাউথ ডিভিশন মতিঝিল শাখার সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার ও শিমুল খুলনা শহরের সোনাডাঙ্গা ময়লাপোতা এলাকার ছেলে। তিনি একজন আর্কিটেক্ট ইঞ্জিনিয়ার।

আহত আরাফাতের স্ত্রী মেসকাতই জাহান ফেরদৌসী কেকাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার গোপীনাথপুর পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক হযরত আলী আরটিভি অনলাইনকে জানান, পরিবার পরিজনের সঙ্গে ঈদ করতে প্রিন্স নিজের প্রাইভেটকারে করে ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়ি যাচ্ছিলেন। তাদের প্রাইভেটকারটি গোপীনাথপুরে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা ঢাকাগামী সেবা গ্রিন লাইনের একটি বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।

বাস প্রাইভেটকারটিকে প্রায় একশ’ গজ দূরে ঠেলে নিয়ে রাস্তার পার্শ্ববর্তী খাদে ফেলে দেয়। এতে প্রাইভেটকারটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এতে প্রিন্স ও শিমুলের শরীর ছিন্ন বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের স্টেশন অফিসার নূর মোহাম্মদ সিকদার আরটিভি অনলাইনকে বলেন, ফায়ার সার্ভিস কর্মী ও পুলিশ সদস্যরা দুটি মরদেহ উদ্ধার করেছে।

এবিএন/মাইকেল/জসিম/এমসি

এই বিভাগের আরো সংবাদ