মুন্সিগঞ্জের ফেরিঘাটে ঘরমুখো মানুষের ঢল

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ আগস্ট ২০১৮, ১২:৩০

মুন্সিগঞ্জ, ২১ আগস্ট, এবিনিউজ : দক্ষিণবঙ্গের প্রবেশদ্বার মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী ঘাটে নেমেছে ঈদে ঘরমুখো মানুষের ঢল।

নাব্যতা সংকট কিছুটা কাটিয়ে এখন একটি রো রো ফেরিসহ মোট ১৭টি ফেরি চলাচল করছে। বৈরী আবহাওয়ায় মঙ্গলবার ভোর থেকে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে।

আজ ২১ আগস্ট (মঙ্গলবার) সকাল ৮টার দিকে ঘাট এলাকায় সহস্রাধিক গাড়ি পারের অপেক্ষায় থাকতে দেখা যায়। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে গাড়ির চাপ বৃদ্ধি পেলেও বেশকিছু সময় অপেক্ষা করে পাড়ি দিতে হচ্ছে। তবে মোটরসাইকেলের সংখ্যাই বেশি।

বিআইডাব্লিউটিসি’র শিমুলিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক গিয়াস উদ্দিন পাটোয়ারি জানান, নৌরুটে বর্তমানে ১৭টি ফেরি চলাচল করছে। বৈরী আবহাওয়ায় ভোর থেকে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। একটি রো রো ফেরি চলছে। প্রচণ্ড স্রোত ও টেউয়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ফেরি চলাচল করতে পারছে না।

তিনি আরও জানান, সোমবার ভোর থেকে গাড়ির চাপ পড়ে আজও তা বিদ্যমান। মোটরসাইকেল ও প্রাইভেট (ছোট) চ্যানেল গাড়ির সংখ্যাই বেশি। ওয়ানওয়ে হবার কারণে চ্যানেলের মুখে গিয়ে ফেরিগুলো অপেক্ষা করে।

আজ ২১ আগস্ট (মঙ্গলবার) সকাল থেকে বেশ কয়েকটি ড্যাম ফেরি পুরোটাই মোটরসাইকেল লোড করে ছাড়তে হয়েছে। ঘাট এলাকায় দুই পার্কিং এয়ার্ডে দূরপাল্লার বাস ও প্রাইভেটকার সংকুলান না হয়ে রাস্তায় অবস্থান করছে পারাপারের জন্য। পারাপারের অপেক্ষায় হাজারের ওপর যানবাহন আছে।

এদিকে, লঞ্চ ঘাটে যাত্রীদের চাপ আছে তবে তা স্বাভাবিক। ঈদ উপলক্ষে রাত আটটার পরিবর্তে রাত দশটা পর্যন্ত লঞ্চ চলাচল করবে। এ রুটে ৮৭টি লঞ্চ চলাচল করে। তবে, বর্তমানে একটি লঞ্চ চলছে না।

বিআইডাব্লিউটিএ'র শিমুলিয়া ঘাট পরিদর্শক মো. সোলেমান জানান, সকাল থেকেই যাত্রীদের চাপ লক্ষ করা গেছে লঞ্চঘাট এলাকায়।  ৮৭টি লঞ্চের মধ্যে একটি লঞ্চ নষ্ট। বাকি ৮৬টি লঞ্চের মাধ্যমে যাত্রীরা পারাপার হচ্ছে। যাত্রীরা ভোগান্তি ছাড়াই যাতায়াত করছে।

এবিএন/মাইকেল/জসিম/এমসি

এই বিভাগের আরো সংবাদ