তালায় পিআইওকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২০:১৩

তালা (সাতক্ষীরা), ২০ আগস্ট, এবিনিউজ : সাতক্ষীরার তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হয়েছেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন  কর্মকর্তা (পিআইও) মো. মাহফুজুর রহমান ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) অনিমেষ কুমার বিশ্বাস। গতকাল ১৯ আগস্ট (রবিবার) রাত ৯টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শিরা।

এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া আফরিনও তাদের সাথে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন। তাৎক্ষণিকভাবে তালা থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে তাদেরকে উদ্ধার করেন। ঘটনার সময় উপস্থিতিরা জানান,উপজেলার নগরঘাটা ইউনিয়নের কর্মসৃজন কর্মসূচি প্রকল্পের টাকা উত্তোলন নিয়ে ইউনিয়নটির চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান লিপু ও তার সদস্যরা পিআইওসহ উপসহকারী কমিশনারের সাথে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ে লিপ্ত হন।

এক পর্যায়ে কাজ না করেও তারা প্রকল্পের চেক ছাড় করাতে ব্যর্থ হয়ে তাদেরকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। খবর পেয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য এ্যাড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।

ঘটনার  পর থেকে পিআইও এবং ভূমি কর্মকর্তাদ্বয়কে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে বসিয়ে রেখে বাইরে পিয়নদের দারোয়ান হিসেবে নিযুক্ত করা হযেছে। ঘটনার বিষয় বিস্তারিত জানতে কোন সাংবাদিক বা অন্য যে কেউ তাদের সাথে সাক্ষাত করতে চাইলে ইউএনও’র অনুমতি ছাড়া তাদের সাথে দেখা বা কথা বলা যাবেনা বলে জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে। নির্ভরযোগ্য একাধিক সূত্র দাবী করছে,নগরঘাটাসহ কয়েকটি ইউনিয়নে কর্মসৃজন কর্মসূচী প্রকল্প স্ব-স্ব এলাকার জনপ্রতিনিধিরা শ্রমিকসহ নানা সংকটে বাস্তবাযন না করেই উপজেলা কর্মকর্তাদের নিকট কাজের চেক অনুমোদনের জন্য চাপ দিয়ে আসছিলেন।

এ নিয়ে বেশ কিছুদিন যাবৎ তাদের মধ্যে মতবিরোধ চলে আসছিল। রবিবার পিআইও সরেজমিনে প্রকল্প এলাকায় গেলে কাজের যথাযথ বাস্তবায়ন দেখতে না পেয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন। ধারণা করা হচ্ছে,ঘটনার সময় রাতে তারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে বৈঠক করছেন বলে বিষয়টি জানতে পেরে স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ জনপ্রতিনিধিরা পরিকল্পিতভাবে সেখানে প্রবেশ করে ঐ বিশৃঙ্খলার জন্ম দেন।

সর্বশেষ বিষয়টি প্রশাসনিকভাবে চাপা রাখার চেষ্টা করা হলেও পরষ্পর তা ছড়িয়ে পড়ায় টক অব দি টাউনে পরিণত হয়েছে। দিনভর উৎসুক মানুষ বিস্তারিত জানতে অফিস পাড়ায় ভিড় জমাতে দেখা যায়।

সূত্রে জানা যায়, কর্মসুজন প্রকল্পে ৪০ দিনের কর্মসুচির কাজে ২নং নগরঘাটা ইউনিয়নে ৬টি ওয়ার্ডে প্রকল্প বরাদ্ধ দেওয়া হয়। এসকল ইউপি সদস্যরা ৩৩ দিনের কাজের হিসাব দিয়ে বিল জমা দেয়। কিন্তু অফিস হিসাব মতে ১নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুস সামাদ ১৮দিন, ২নং ওয়ার্ড সদস্য আঃ করিম বিশ্বাস ২৩ দিন, ৫নং ওয়ার্ড সদস্য মনিরুল ইসলাম ২৩ দিন, ৭নং ওয়ার্ড সদস্য মো. বাবলু রহমান ২৩ দিন, ৮নং ওয়ার্ড সদস্য লক্ষীকান্ত সরকার ১৮ দিন, ৯নং ওয়ার্ড সদস্য প্রফুল্ল মন্ডল ২৩দিন করে কাজ করেছে।

ইউপি সদস্যদের অতিরিক্ত টাকা পরিশোধ না করায় প্রকল্প কর্মকর্তা (পিআইও) মোঃ মাহাফুজুর রহমান কে মারপিঠ এবং সহকারি কমিশনার(ভুমি) অনিমেষ বিশ্বাস কে লাঞ্চিত করে। এঘটনায় সুধী সমাজ সংশ্লিষ্ঠ উদ্বর্তন কর্তৃপক্ষের নিকট তদন্ত পুর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।

তালা উপজেলার নগরঘাটা ইউনিয়নের ইউপি সদস্য বাবলুর রহমান জানান, তালা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) মো. মাহাফুজুর রহমান কর্মসৃজন প্রকল্পের শ্রমিকদের টাকা পরিশোধ করতে এক লক্ষ ৫০ হাজার টাকা দাবী করেন। তাকে টাকা না দেওয়ায় গত চার মাস ধরে বিষয়টি নিয়ে তিনি তালবাহানা করতে থাকেন। এ নিয়ে কথা কাটকাটির একপর্যায় ধাকাধাক্কি হয়েছে।

তালা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ মাহাফুজুর রহমান বলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের রুমে উত্তাপ্ত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। তাদের কাছে কোন টাকা চাওয়া হয়নি। তারা কাজ না করে অতিরিক্ত টাকা দাবী করেছে। এজন্য তাদের টাকা দেওয়া হয়নি।

তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সাজিয়া আফরীন বলেন, পত্রিকায় লেখার মতো কোনো ঘটনা ঘটেনি।

এবিএন/সেলিম হায়দার/জসিম/এমসি

এই বিভাগের আরো সংবাদ