এবার রাজবাড়ীতে প্রবাসীর মাকে গলা কেটে হত্যা ও স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৭ আগস্ট ২০১৮, ১৮:৫০

রাজবাড়ী, ১৭ আগস্ট, এবিনিউজ : রাজবাড়ী জেলা সদরের আলীপুর ইউনিয়নে ঘুমন্ত অবস্থায় পুত্রবধূর পাশ থেকেই শ্বাশুড়ি হাজেরা বেগম (৫০) কে গলা কেটে খুন ও পুত্রবধূ স্বপ্না বেগম (২৩) কে কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১৬আগস্ট) দিবাগত রাত ১২টার দিকে আলীপুর ইউনিয়নের পশ্চিম বারবাকপুর গ্রামের ২নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শাশুড়ী হাজেরা বেগম ঐ গ্রামের কৃষক তমিজ উদ্দিন সেখের স্ত্রী আহত পুত্রবধূ স্বপ্না হাজেরা বেগমের ছেলে মালোয়েশিয়া প্রবাসী হাফিজুল সেখের স্ত্রী।

নিহত হাজেরা বেগমের স্বামী তমিজ উদ্দিন বলেন, বৃহস্পতিবার (১৬ আগস্ট) রাত ১০ টার দিকে রাতের খাবার ও টেলিভিশন দেখার পর হাজেরা বেগম পুত্রবধূ স্বপ্নার সাথে এক ঘরে ঘুমাতে যায়। রাত ১২টার দিকে স্বপ্নার চিৎকারে এগিয়ে গেলে দেখা যায় বিছানার উপরে হাজেরার গলাকাটা লাশ ও স্বপ্নার দুই হাতে জখম। পরে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। কেন এমন ঘটনা ঘটলো সে বিষয়ে কিছুই বুঝতে পারছিনা। তবে পুত্রবধূ ঘটনার সময় পাশেই ঘুমিয়ে ছিলো সে বলছে কিছুই জানেনা।পুলিশ তাকে থানায় নিয়ে গেছে।

রাজবাড়ী সদর থানার এস আই এনসের আলী জানান, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।নিহতের সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার প্রকৃত কারন অনুসন্ধান ও দোষীদের সনাক্ত করে গ্রেপ্তারে মাঠে নেমেছে পুলিশ।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (৩ আগস্ট) জেলা সদরের পশ্চিম মূলঘর ইউনিয়ন থেকে দাদী-নাতনী ও  বুধবার (৮ আগস্ট)  সকালে বানিবহ ইউনিয়নের আটদাপুনিয়া গ্রাম থেকে আদুরী বেগম লাশসহ ৩নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে রাজবাড়ী সদর থানা পুলিশ। সেই ঘটনায় অজ্ঞাত আসামী করে থানায় মামলা দায়ের হলেও এখন পর্যন্ত ঘটনার সঠিক কারন উদঘাটন করতে পারে নি পুলিশ।  তবে দাদী-নাতনী হত্যার ঘটনায় ২জন সাত্তার, এয়াসিন ও আদুরী বেগম হত্যায় ৪জন সন্ধিহান আসামীকে আটক করেছে পুলিশ।

এবিএন/খন্দকার রবিউল ইসলাম/জসিম/রাজ্জাক

এই বিভাগের আরো সংবাদ