ক্যাবল অপারেটরদের সংবাদ সম্মেলন

ময়মনসিংহে ৭২ ঘন্টার মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার দাবি

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১৮:১৮

ময়মনসিংহ, ১৬ আগস্ট, এবিনিউজ : মুক্তাগাছা উপজেলার মিডিয়া ক্যাবল কানেকশ অফিসে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটসহ ক্যাবল ব্যবসা জবরদখলের ঘটনায় দায়ীদের গ্রেফতারে ৭২ ঘন্টার আলটিমেটাম দিয়েছে ক্যাবল অপারেটর এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ, ময়মনসিংহ বিভাগের নেতৃবৃন্দ।

এসময়ে হামলকারী সন্ত্রাসীরা গ্রেফতার না হলে আগামী ১৯ আগস্ট রবিবার সন্ধ্যা ৭ টার পর থেকে ক্যাবল টিভির ডিস সংযোগ বন্ধ রাখা হবে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ময়মনসিংহ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই আলটিমেটাম দেয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, মুক্তাগাছা উপজেলার ক্যাবল অপারেটর ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ নিতে মাহবুবুল আলম মনির নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী গত ১১ আগষ্ট রাতে রঞ্জন গোস্বামীর মালিকানাধীন মিডিয়া ক্যাবেল কানেকশ অফিসে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দিলেও কোন ব্যবস্থা নেয়নি মুক্তাগাছা থানা পুলিশ। এই ঘটনার পর থেকে মুক্তাগাছা উপজেলায় ক্যাবল টিভির সম্প্রচার বন্ধ রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে রঞ্জন গোস্বামী বলেন তিনি প্রায় গত দুই যুগ ধরে সরকারের নিয়ম নীতি মেনে মুক্তাগাছায় ডিশ সংযোগের ব্যবসা করে আসছেন। স¤প্রতি স্থানীয় প্রভাবশালী একটি চক্র এই ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ নিতে মরিয়া হয়ে উঠে। চক্রটি তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নিয়ন্ত্রনাধীন ডিশ সংযোগের তারসহ বিভিন্ন যন্ত্রাংশ কৌশলে নষ্ট করে ফেলে। রাতের বেলায় চুরি হতে থাকে ডিশ সংযোগের তার।

 সর্বশেষ গত ১১ আগষ্ট শনিবার রাতে প্রতিষ্ঠানে মূল্যবান যন্ত্রাংশও কার্যালয় থেকে নিয়ে যায় সন্ত্রাসী চক্রটি। রঞ্জন গোস্বামী বলেন এ পর্যন্ত তার ৯৮ লাখ টাকার মালামাল চুরি বা নষ্ট অথবা লুট করা হয়েছে। তিনি বলেন গত ৭দিন ধরে পুরো মুক্তাগাছা উপজেলাতে ডিশ সংযোগ নেই।

 রঞ্জন গোস্বামী অভিযোগ করেন মাহবুবুল আলম মনি, জাহাঙ্গীর আলম সোহেল, সাইদুল ফরাজী প্রমুখ তার ব্যবসা দখল করতে চাইছে। এদের মধ্যে মাহবুবুল আলম মণি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেনের জামাতা। এজন্য প্রশাসনও পুরো ঘটনায় নীরব ভূমিকা পালন করছে। তিনি থানায় মামলা দিলেও পুলিশ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মামলাটি রেকর্ড করেনি।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মুক্তাগাছার মিডিয়া ক্যাবল কানেকশন এর স্বত্তাধিকারী বাবু রঞ্জণ গোস্বামী।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহের ক্যাবল ব্যবসায়ী জাহিদুল ইসলাম পাপ্পু ও শফিকুল আলম, শেরপুরের মেহেদী হাসান হালিম, জামালপুরের আখতারুজ্জামান ফারুক, হক তরফদার, গোপীনাথ ঘোষ, টাঙ্গাইলের জুয়েল এবং মাজহারুল ইসলাম তারিক। সংবাদ সম্মেলন শেষে ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে গিয়ে ঘটনার বিচার দাবিতে স্মারকলিপি দিয়েছে ক্যাবল অপারেটররা।

 

এবিএন/মঈন উদ্দিন রায়হান/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food