ইউএনডিপির নগদ অর্থ বিতরণ

বান্দরবানে সেনাবাহিনীর বিনা মূল্যে চিকিৎসা ক্যাম্প কর্মসূচী

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৩ আগস্ট ২০১৮, ১৪:৪৩

রুমা (বান্দরবান) , ১৩ আগস্ট, এবিনিউজ : বান্দরবানের রুমায় ইউএনডিপির (জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচী) ভিসিএফ প্রকল্পের আওতায় গ্রামীন জনগোষ্ঠীর মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। এ সময় রুমার ১০টি গ্রামের ২৮৪ পরিবারের নারী সদস্যদের মাঝে নগদ সাত হাজার টাকা করে প্রদান করা হয়।

আজ সোমবার (১৩ অগাস্ট) এসআইডি এই অর্থ বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ইউএনডিপির ভিসিএফ ( ভিলেজ কমন ফরেস্ট ) কর্মসূচী মূলত জনগোষ্ঠী ভিত্তিক টেকসই সামাজিক বনায়ন সংরক্ষণ প্রকল্প যা ইউএসএআইডি এর অর্থায়নে পরিচালিত। ভিসিএফ স্থানীয় ভাবে মৌজা বন নামে পরিচিত এবং রাষ্ট্রীয় সম্পদ হিসেবে পরিগণিত , ইউএনডিপি জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলার অংশ হিসেবে এ বনায়ন সংকক্ষণের জন্য ঐতিহ্যগত নেতৃত্বকে বিভিন্ন ভাবে প্রণোদনা দিয়ে আসছে।

পার্বত্য চট্টগ্রামে প্রায় ৩০০ এরও বেশি চিহ্নিত গ্রামীণ বা মৌজা বন রয়েছে, যা আনুমানিক সাড়ে ১২ হাজার হেক্টর জমির উপর অবস্থিত। গাছপালা, বন্য প্রাণী এবং অত্যাবশ্যকীয় পানির উৎস হিসেবে ইউএনডিপি ভিসিএফ’কে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।
 
এসআইডি আয়োজিত অর্থ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ক্যসাপ্রু মারমা, সভাপতিত্ব করেন মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা মো: শহীদুল আলম। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন রুমা উপজেলা চেয়ারম্যান অংথোয়াইচিং মারমা, পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য জুয়েল বম, সিয়ং ম্রো ও ফিলিপ ত্রিপুরা প্রমুখ ব্যক্তি বর্গ। 

একই সময়ে রুমায় আজ বাজার এলাকায় রুমা সেনা জোনের তত্ত্বাবধানে বিনাম্যল্যে চিকিৎসা সহায়তা ক্যাম্প পরিচালনা করা হয়েছে। চিকিৎসা ক্যাম্পে চিকিৎসা নিতে আসেন রুমার দূর-দূরান্ত এলাকার বহু মানুষ। এসময় উপস্থিত ছিলেন রুমা জোন কমান্ডার মো: শাহনেওয়াজ। রুমায় নিয়মিত সেনা বাহিনী বিভিন্ন দুর্গম এলাকায় চিকিৎসা ক্যাম্প পরিচালনা করে থাকে, তারই অংশ হিসেবে আজকের (সোমবার) এ ক্যাম্প পরিচালনা করছে সেনা বাহিনী। মূলত মেডিকেল ক্যাম্পেইনগুলোতে রোগী দেখা, বিনামূল্যে ওষুধ প্রদান, প্রয়োজনে অধিকতর সেবা প্রদান করা হয়। 

এছাড়া রুমা জোনের সামরিক হাসপাতাল থেকেও বিনামূল্যে চিকিৎসা নিয়ে থাকে স্থানীয় অধিবাসীরা। তাছাড়াও অনেক সময় দুর্ঘটনায় মারাত্মক আহত রোগীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয় রুমা সেনা জোনের হাসপাতালে। সেনা সূত্রে জানা যায়, রুমার সুনসং পাড়া এলাকায় সেনা বাহিনী একটি ক্লিনিক স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে। ওই এলাকা (সুনসং পাড়া) অত্যন্ত দুর্গম বিধায় পাহাড় বেয়ে রোগী চিকিৎসা নিতে আসতে পারেনা বা নিয়ে আসা অত্যন্ত কষ্টকর, অনেক সময় বিনা চিকিৎসায় রোগী মারা যায়। এ সমস্যা থেকে ওই এলাকার জনসাধারণদের উদ্ধার করতে এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। খুব শীঘ্রই এটির কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানা গেছে।

এবিএন/ চনুমং মারমা/জসিম/নির্ঝর

এই বিভাগের আরো সংবাদ