নিজেই প্রতিমা তৈরি করে পূজা করছে দুর্গাপুরে কিশোর

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০০:১৭

কিশোর বয়সে নিজের হাতে প্রতিমা তৈরি করে নিজেই মন্ত্র বলে দূর্গাপূজা করে সাড়া ফেলেছে নেত্রকোণার দুর্গাপুরের কিশোর নির্মাণ দত্ত। নিপূণ হাতের ছোঁয়ায় মৃম্ময়ী প্রতিমা ধীরে ধীরে দেবী রূপ ধারণ করছেন।

জানা যায়, নেত্রকোণার দুর্গাপুর পৌর শহরের শিবগঞ্জ গ্রামের গোপাল দত্ত ও নমিতা দত্তের ছোট ছেলে নির্মাণ দত্ত চার বছর যাবত নিজেই প্রতিমা তৈরি করে পূজা করে। বর্তমানে নির্মাণ দত্ত এমকেসিএম পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে নবম শ্রেণিতে পড়াশোনা করছে।

নির্মাণ ছোটবেলা থেকে ছবি আঁকাআকিঁর কাজ করতো। বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় তার মনে ইচ্ছে জাগে প্রতিমা তৈরি করার। কোনো ওস্তাদ না ধরেই বাড়িতে মাটি দিয়ে চেষ্টা করতে থাকে প্রতিমা তৈরির কাজ।

২০১৬ সালে নিজের ঘরের বারান্দায় মাটি দিয়ে তৈরি করে দুর্গার প্রতিমা। তার প্রতিভা দেখে অবাক হন মা-বাবাসহ স্বজনরা। এইভাবে প্রতিবছর বাড়ির আঙিনায় মণ্ডপ তৈরী করে দূর্গাপূজা করে নির্মাণ দত্ত।

গত এক মাসের প্রচেষ্টায় নির্মাণ তৈরি করলো দুর্গা, কার্তিক, গনেশ, মহিসাসুর, লক্ষ্মী ও স্বরস্বতীর প্রতিমা। রং তুলির কাজটিও নিজের হাতে করে সে। কোন ডাইস বা খর্মা ছাড়াই নিজ হাতে প্রতিমাগুলোর মুখমন্ডল তৈরি করেছে, যা অভাবনীয়।

পাল বংশের সন্তান না হয়েও নির্মাণ দত্ত যে প্রতিমা তৈরি করেছে তা দেখে হতবাক স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন।

এলাকার বাসিন্দারা বলেন, নির্মাণ দত্তের আত্মবিশ্বাস ও সাহস দেখে আমরা হতবাক। প্রতিমা তৈরিতে তার নিঁখুত কাজ সত্যিই অসাধারণ।

নির্মাণ দত্তের বাবা গোপাল দত্ত ও মা নমিতা দত্ত বলেন, সৃষ্টিকর্তার আশীর্বাদে আমাদের ছেলে প্রতিমা তৈরি করতে পেরেছে। তার কাজে আমরা খুব খুশি।

নির্মাণ দত্ত জানায়, আমি নিজ হাতে দেবী দুর্গা মাকে বানাবো, এটা আমার ইচ্ছা ছিলো। সৃষ্টিকর্তার ইচ্ছা ও সকলের আশির্বাদে আজ আমি করতে পেরেছি।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ