সাফল্যের ২০ বছরে গণ বিশ্ববিদ্যালয়

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৪ জুলাই ২০১৮, ১২:৫১

গণ বিশ্ববিদ্যালয়, ১৪ জুলাই, এবিনিউজ : সফলতার ১৯ বছর অতিক্রম করে ২০ বছরে পদার্পণ করল ব্যতিক্রমী এ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি। অল্প খরচে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উচ্চশিক্ষার সুযোগ সৃষ্টির লক্ষ্যে ১৯৯৮ সালের ১৪ জুলাই ঢাকা মহানগরীর অদূরে গ্রামের এক মনোরম পরিবেশে উচ্চশিা প্রসারের ব্রত নিয়ে গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের প্রাঙ্গণে গড়ে ওঠে গণ বিশ্ববিদ্যালয়।

দেশের অন্যান্য বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ব্যক্তি মালিকানাধীন হলেও গণ বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালিত হয় দেশের বরেণ্য শিাবিদদের সমন্বয়ে গঠিত একটি ট্রাস্টি বোর্ডের মাধ্যমে।

বর্তমানে সাভারের নলামে ২৫ একর জমির ওপর তৈরি নিজস্ব ক্যাম্পাসে পরিচালিত হচ্ছে এর শিক্ষা কার্যক্রম। গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে এমবিবিএস ও বিডিএসসহ চার অনুষদের অধীনে ১৬টি বিভাগে প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছে। এই বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা কার্যক্রমের পাশাপাশি নিজস্ব কিছু বৈশিষ্ট্যের কারণে পেয়েছে ব্যতিক্রমী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের খ্যাতি। গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, ছাত্র ও কর্মচারীরা অধূমপায়ী ও মাদকাসক্তিমুক্ত।

গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়মিত শিক্ষা কার্যক্রমের পাশাপাশি শরীরচর্চা, খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে অংশ্রগহণ বাধ্যতামূলক। দেশে যেখানে কোনো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে এমনকি দীর্ঘদিন ধরে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ নেই, সেখানে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব তৈরি ও তাদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে রয়েছে নির্বাচিত ছাত্র সংসদ।

গ্রামীণ জীবন বিশেষ করে গ্রামের শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবা সম্পর্কে জানতে এমবিবিএস ও বিডিএস শিক্ষার্থীদের প্রতি শিক্ষাবর্ষে এক মাস গ্রামে অবস্থান করতে হয়। এখানে পরীক্ষায় ভালো গ্রেড পেলে যেমন বেতন মওকুফের সুযোগ রয়েছে তেমনি দরিদ্র, অনগ্রসর ক্ষুদ্র জাতিসত্তার শিক্ষার্থীদের বৃত্তিদানের পাশাপাশি পড়াশোনায় রয়েছে বিশেষ সুযোগ।

এবিএন/সারোয়ার জাহান সাগর/জসিম/এমসি

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food