আবরারের খুনিদের ফাঁসির দাবিতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৮ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:৫৩

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যায় জড়িতদের ফাঁসির দাবিতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ মিছিল  করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষার্থীরা।

আজ মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) দুপুর ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের জয় বাংলা ফটক সংলগ্ন ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে রাস্তা আটকে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা।

 অবরোধ চলাকালে রাস্তার দু’পাশে শতাধিক যানবাহন আটকা পড়ে। এসময় তারা টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। শিক্ষার্থীরা ভারতের সাথে বাংলাদেশের সম্প্রতি চুক্তিকে ‘দেশবিরোধী’ অ্যাখ্যা দিয়ে স্লোগান দেন। পরে জয় বাংলা ফটক থেকে মিছিল নিয়ে প্রধান ফটক এলাকায় যান তারা। দুপুর আড়াইটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল টিম বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীদের অবরোধ তুলে নেওয়ার অনুরোধ জানায়।

পরে প্রধান ফটকের সামনে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে অবরোধ তুলে নেন শিক্ষার্থীরা। সমাবেশে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র সংরক্ষণ অধিকার পরিষদ জাবি শাখার সমন্বয়ক আবু সাঈদ বলেন, ‘আবরার হত্যার মতো জঘন্য অপরাধ কারও কাম্য নয়। এর আগেও ছাত্রলীগ অনেক হত্যাকান্ডে জড়িত ছিল। ভবিষ্যতে কেউ যাতে এরকম অপরাধ করার সাহস না পায় সেজন্য দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।’

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট জাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ দিদার বলেন, ‘বাংলাদেশের নতজানু চুক্তির সমালোচনা  করায় আবরারকে হত্যা করা হয়েছে। মূলত তারা গেস্টরুম প্রথার মাধ্যমে ধীরে ধীরে নিপীড়ক হয়ে উঠে এবং হত্যা করার সাহস পায়। তাই অবিলম্বে গেস্টরুম সংস্কৃতি উঠিয়ে নিতে হবে, আবরার হত্যাকারীদের ফাঁসি দিতে হবে। সেইসাথে দেশবিরোধী ভারত চুক্তি অবিলম্বে বাতিল করতে হবে।’

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদের সভাপতি নজির আমিন চৌধুরী জয় বলেন, ‘বাংলাদেশ থেকে ভারতকে পানি ও গ্যাস দেওয়ার মাধ্যমে আমাদের সঁপে দেওয়া হচ্ছে। শুধু এই বিষয়টার সমালোচনা করায় আবরারকে হত্যা করা হয়।’
 

এবিএন/এনামুল হক তামিম/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ