ঢাবি সিনেট থেকে পদত্যাগ করলেন শোভন

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৯:০০ | আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৯:১৩

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য থেকে পদত্যাগ করেছেন ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বরাবর চিঠি দিয়ে সিনেট সদস্য থেকে অব্যাহতির আবেদনের মাধ্যমে পদত্যাগ পত্র জমা দেন তিনি।

আজ সোমবার বিকাল ৪টায় শোভনের পক্ষে উপাচার্যের নিকট পদত্যাগ পত্র জমা দেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক আহসান হাবিব ও ডাকসু সদস্য রফিকুল ইসলাম সবুজ।

প্রসঙ্গত, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েল সিনেটে পাঁচজন ছাত্র প্রতিনিধি থাকে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক সিনেট অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয় গত ২৬ জুন। এতে পাঁচজন ছাত্র প্রতিনিধির মধ্যে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস সিনেট সদস্য হিসেবে মনোনীত হয়। বাকি তিনজন হলেন- ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর, জিএস গোলাম রাব্বানী ও সদস্য তিলোত্তমা শিকদার।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান বলেন, ‘শোভনের অব্যাহতিপত্র পেয়েছি। সংশ্লিষ্ট সভায় বিধিমোতাবেক সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’
 
এর আগে সাম্প্রতিক বিতর্কিত নানা কর্মকাণ্ডের অভিযোগে ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে পদচ্যুত করা হয়েছে। তাঁদের পরিবর্তে জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি আল নাহিয়ান খান ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবং প্রথম যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যকে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেওয়া হয়।

গত শনিবার গণভবনে আওয়ামী লীগের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় এ বিষয়ে আলোচনার পর দলের সভাপতি শেখ হাসিনা কিছু নির্দেশনা দেন।

ছাত্রলীগের দুই শীর্ষ নেতার পদচ্যুতির পর থেকে তাদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ উঠতে থাকে। এমনকি দুর্নীতি ও অনিয়মের  অভিযোগের ছাত্রলীগের পদ হারানোর পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্যের পদ থেকে তাদের অব্যাহতি দেয়ার জন্য দাবি তুলে ডাকসু ভিপি নুরুল হক সহ সাধারণ শিক্ষার্থীরা।


 
ডাকসু জিএস গোলাম রাব্বানী ও সিনেট সদস্য রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের অব্যাহতি দাবি করে রোববার উপাচার্য বরাবর আবেদন করেন ডাকসু ভিপি নুরুল হক। এরই প্রেক্ষিতে সিনেট সদস্য থেকে পদত্যাগ করলেন শোভন।

এদিকে শোভনের অনুসারীরা তার পদত্যাগকে বিজয় হিসেবে দেখছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তৌফিক হাসান মেহেদী লেখেন, ‘একজন ভালো নেতা আর বড় ভাইকে হারালো ঢাবির শিক্ষার্থীরা’।

এবিএন/মমিন/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ