ইবিতে প্রথমবারের মত ৩ দিনব্যাপি বইমেলা শুরু কাল

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২০:২৯

অমর একুশে ফেব্রুয়ারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রথমবারের মত তিনদিনব্যাপি বইমেলা শুরু হচ্ছে আগামীকাল। ইতোমধ্যেই মেলার প্রস্তুতিতে শেষ হয়েছে বলে জানা গেছে। অনুষ্ঠিততব্য বইমেলায় বিভিন্ন বিভাগের অংশগ্রহণে প্রায় ২১টি বইয়ের স্টল থাকছে। আগামী ১৯, ২০ ও ২১ ফেব্রুয়ারি অনুষদ ভবনস্থ আম্রকাননে এই মেলা অনুষ্ঠিত হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় তথ্য, প্রকাশনা ও জনসংযোগ দফতর সূত্রে জানা যায়, অমর একুশ- ২০১৯ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন উপলক্ষে তিনদিনব্যাপি বইমেলা ছাড়াও আরো বিভিন্ন  কর্মসূচি গ্রহণ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। কর্মসূচির শুরুতেই ১৯ ফেব্রুয়ারী বাংলামঞ্চে মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী। এছাড়া কর্মসূচির প্রথম ও দ্বিতীয় দিন বেলা বারোটা থেকে বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।

আলোচনা সভার প্রথম দিন প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বিশিষ্ট কথাসাহিত্যিক ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের প্রাক্তন অধ্যাপক হাসান আজিজুল হক। দ্বিতীয় দিন আলোচনা করবেন বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু চেয়ারের অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান।

কর্মসূচির অংশ হিসেবে ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেদ্রীয় মসজিদে ভাষা শহিদদের রূহের মাগফিরাত কামনা করে কুরআন খতম ও দোয়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। পরে রাত পৌনে ১২টায় উপাচার্যের নেতৃত্বে প্রশাসন ভবন চত্বর থেকে শহীদদের স্মরণে শোকর‌্যালী অনুষ্ঠিত হবে।

তৃতীয় দিন ২১ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হবে। এদিন সকাল সাড়ে ১০টায় বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার মধ্যদিয়ে তিনদিনের কর্মসূচির শেষ হবে। এদিন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন রাজশাহী নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্দুল খালেক।

সার্বিক বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী বলেন, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে এই প্রথম তিনদিনব্যাপি বইমেলার আয়োজন করা হচ্ছে। বস্তুত, আমাদের উদ্দেশ্য মানসম্পন্ন লেখক তৈরী করা এবং পাঠক আগ্রহ সৃষ্টি করা। আমরা ইতোমধ্যে সন্তোষজনক সাড়া পেয়েছি। আগামীতে এই মেলায় পরিসর আরও বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে।

প্রস্তুতির বিষয়ে তিনি বলেন, ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। প্রস্তুতি সন্তোষজনক। সবকিছু ঠিক থাকলে কাল যথাসময়ে মেলার উদ্বোধন হবে।


এবিএন/অনি আতিকুর রহমান/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ