‘নন্দলালের মতো স্বার্থবুদ্ধিতে আবদ্ধ থাকা লিডারশীপের কাজ নয়’ : ইবি উপাচার্য

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৮:৫২

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী বলেছেন, নন্দলালের মতো সারাজীবন নিজের স্বার্থবুদ্ধি, বিষয়বুদ্ধি চার দেওয়ালে ঘেরা টপের মধ্যে আবদ্ধ থাকা লিডার শিপের কাজ নয়।

 লিডার শিপ হচ্ছে দেশের কথা, দশের কথা এবং পৃথিবীর কথা ভাবা। নিজের উপর অর্পিত দায়িত্ব সততা ও দক্ষতার সাথে পালনের মাধ্যমেই লিডারশিপ তৈরী করা সম্ভব।

আজ শনিবার সকালে আইন অনুষদের আয়োজনে বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ‘উচ্চ শিক্ষার মানোন্নয়নে নেতৃত্বের প্রয়োজনীয়তা’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

 তিনি বলেন,  নেতা হলো সে; যে সঠিক পথ সম্পর্কে জানে, সেই পথে বিচরণ করে এবং অন্যকে সেই পথ দেখায়। বৃত্তাবদ্ধ থেকে কিংবা গতানুগতিকতায় গা ভাসিয়ে কখনও বিখ্যাত লিডার হওয়া যায় না। জীবনের যে পথটি কন্টকাকীর্ণ, যে পথে খুব কম মানুষ গেছে, যে পথ অমসৃণ-বন্ধুর এবং শ্বাপদসঙ্কুল সেই পথ বেছে নেয়াই হচ্ছে প্রকৃত নেতৃত্বের কাজ। তাই প্রকৃত লিডারশিপ অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ।

তিনি বলেন, ছকবদ্ধ জীবনে হয়তো কোন মানুষের জন্য সুখের কিন্তু জাতির জন্য দুর্ভাগ্যের। দেশ আমাকে কি দিতে পারবে সেটি বড় কথা নয়, দেশকে আমি কি দিতে পারবো সেটার হিসেব কষতে হবে।

আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. রেবা মন্ডলের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক ইউনির্ভাসিটি অব লিবারেল আটর্স বাংলাদেশের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এইচএম জহিরুল হক বলেন, নিজের মানসিকতা পরিবর্তন করতে হবে। তাহলে সমাজ পরিবর্তন হবে। নিজেকে লিডার হিসেবে তুলে ধরতে হলে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে, প্রতিষ্ঠানকে নিজের মনে করতে দেখতে হবে, সেবার মানসিকতা থাকতে হবে, সব কাজে স্বচ্ছতা থাকতে হবে এবং সৎ হতে হবে।’

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. অরবিন্দ সাহা ও  কুষ্টিয়া রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাষ্টি বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. জহুরুল ইসলাম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ল’ এন্ড ল্যান্ড ম্যানেজমেন্ট বিভাগের প্রভাষক বনানী আফরিন। দিনব্যাপী এ সেমিনারে আইন অনুষদভূক্ত বিভাগগুলোর শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

 

এবিএন/অনি আতিকুর রহমান/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food