বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জন্য প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট গড়ে তুলুন : ইউজিসি চেয়ারম্যান

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৭:৫৬

বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান বলেন, দেশে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বিশ্ববিদ্যালয়ের গুণগত মানসম্পন্ন শিক্ষকরা একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।

তিনি বলেন, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষকদের জন্য পৃথক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র বা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। কিন্তু উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিযুক্ত শিক্ষকদের জন্য কোন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট নেই। এটা খুবই দুঃখজনক। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষকদের জন্য একটি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট গড়ে তোলা জরুরি।

প্রস্তাবিত ‘হায়ার এডুকেশন এক্সিলারেশন এন্ড ট্রান্সফরমেশন (হিট)’ প্রকল্প সর্ম্পকে আজ বুধবার ইউজিসিতে অনুষ্ঠিত এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন। পাঁচ বছর মেয়াদী উচ্চশিক্ষা ক্ষেত্রে মেঘা প্রকল্প এ বছর নাগাদ শুরু হবে বলে আশা করা যাচ্ছে। প্রকল্পটি চূড়ান্ত হলে বাংলাদেশ সরকার, প্রকল্পে অংশগ্রহণকারী এ অঞ্চলের কিছু দেশ ও বিশ্ব ব্যাংক যৌথভাবে অর্থায়ন করবে।

সভায় বিশ্ব ব্যাংকের প্রতিনিধিরা জানান, উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও শিক্ষক ব্যবস্থাপনা নীতির ক্ষেত্রে তারা গুরুত্বরোপ করবে। দেশে উচ্চশিক্ষার মান নিশ্চিত করতে ইউজিসিকে উচ্চশিক্ষা কমিশনে রুপান্তরের  প্রয়োজনের কথা সভায় তুলে ধরা হয়। হিট প্রকল্পের অধীনে ইউজিসি’র কার্যক্রম এবং দেশের বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের প্রশাসনকে ডিজিটালাইজড করা হবে বলে জানানো হয়।

বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিল (বিএসি) সম্পর্কে বিশ্ব ব্যাংক জানায় বিএসি’র কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে এটি প্রযুক্তিগত সহযোগিতা প্রদান করবে। বিএসিকে আন্তর্জাতিক কোয়ালিটি অ্যাসিউরেন্স সংস্থার সদস্যপদ পেতে এবং বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে আইকিউএসি প্রতিষ্ঠা করতে সহায়তা করবে।

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থায়ন প্রসঙ্গে বিশ্বব্যাংক কর্মক্ষমতার ওপর ভিত্তি  করে অর্থ বরাদ্দের সুপারিশ করে। প্রাথমিকভাবে এ বরাদ্দ (পারফর্মেন্সের ভিত্তিতে) সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ করা যেতে পারে।হিট প্রকল্পের অধীনে বাংলাদেশে উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আসল সার্টিফিকেট নির্ণয়ের জন্য একটি  ‘ইউনিভার্সাল সার্টিফিকেট রিপোজেটরি’ প্রতিষ্ঠা করা হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি ব্যবস্থা সর্ম্পকে  বিশ্ব ব্যাংক ও অন্যান্য অংশগ্রহণকারীরা ভর্তি পরীক্ষা ডিজিটাল পদ্ধতিতে করার পক্ষে মত প্রদান করেন। শিক্ষানবিশদের (ইর্ন্টান) জন্য একটি জাতীয় নির্দেশিকা প্রনয়নের সুপারিশ করেন।

সভায় ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ইউসুফ আলী মোল্লা, প্রফেসর ড. মোঃ আখতার হোসেন; নর্থ সাউথ ইউনির্ভাসিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. আতিক ইসলাম, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবদুুল্লাহ আল হাসান চৌধুরী ও ড. মোঃ মাহমুদ-উল-হক, বিশ্ব ব্যাংকের সিনিয়র অপারেশন অফিসার ড. মোঃ মোখলেসুর রহমান, বরেণ্য শিক্ষাবিদ, ইউজিসি ও বিশ্ব ব্যাংকের পদস্থ কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ