বেরোবি’তে যথাযথ মর্যাদায় বেগম রোকেয়া দিবস পালিত

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৭:৪০

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (বেরোবি), রংপুর-এ যথাযথ মর্যাদায় বেগম রোকেয়া দিবস-২০১৮ পালন করা হয়েছে।

আজ রবিবার (৯ ডিসেম্বর ২০১৮) সকাল সাড়ে ১০টায় দিবসটি উপলক্ষে নানা কর্মসূচির উদ্বোধন করেন মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ডক্টর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ। দিবসের শুরুতেই বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলার মাঠ থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার মধ্যদিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়

এবং একই স্থানে রোকেয়া বই মেলা ও রোকেয়া’র বই প্রদর্শনী, আলোচনা অনুষ্ঠানের পর তাৎক্ষণিক কুইজ প্রতিযোগিতা এবং রোকেয়ার গল্প অবলম্বনে নাটিকার মধ্যদিয়ে কর্মসূচির সমাপ্তি টানা হয়।

শোভাযাত্রা ও আলোচনা অনুষ্ঠান ছাড়াও মহীয়সী বেগম রোকেয়ার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে তাঁর অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে পু®পস্তবক অর্পণ করা হয়। এছাড়াও দিবসটি উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে একটি জাতীয় দৈনিকে বিশেষ ক্রোড়পত্র বের করা হয় ।

উইমেন অ্যান্ড জেন্ডার স্টাডিজ বিভাগের প্রভাষক কুন্তলা চৌধুরীর সঞ্চালনায় ‘বেগম রোকেয়ার স্বদেশ ভাবনা’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ডক্টর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ।

এতে সভাপতিত্ব করেন রোকেয়া দিবস আয়োজক কমিটির আহবায়ক প্রফেসর ড. মোঃ মোরশেদ হোসেন এবং স্বাগত বক্তব্য পাঠ করেন আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব মোঃ দেলোয়ার হোসেন। দিবসের আলোচনায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলা বিভাগের প্রফেসর ড. সরিফা সালোয়া ডিনা।

এসময় আলোচনায় অংশ নেন কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. পরিমল চন্দ্র বর্মণ, প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. আবু কালাম মোঃ ফরিদ উল ইসলাম, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ও শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. মোঃ গাজী মাজহারুল আনোয়ার, পরিকল্পনা, উন্নয়ন ও ওয়ার্কস-এর পরিচালক প্রফেসর ড. আর এম হাফিজুর রহমান,  উইমেন এন্ড জেন্ডার স্টাডিস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ হুমায়ুন কবীরসহ বেরোবি ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ এবং সাধারণ শিক্ষার্থী।
 
আলোচনা সভায় বক্তারা মহীয়সী ‘বেগম রোকেয়ার স্বদেশ ভাবনা’ নিয়ে আলোচনা করেন। ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর কলিমউল্লাহ বলেন, ‘বেগম রোকেয়া নারী জাতিসহ পুরো সমাজকে এগিয়ে নেয়ার জন্য কাজ করে গেছেন। তাঁর সকল কর্মকান্ড নানা সময়ে দেশে এবং বিদেশেও ব্যাপক ভাবে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। তাঁর নামে প্রতিষ্ঠিত দেশের প্রথম এই বিশ্ববিদ্যালয়ে বেগম রোকেয়ার স্থায়ী ভাষ্কর্য নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

সদ্য সমাপ্ত ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের জন্য বাধ্যতামুলক রোকেয়া স্টাডিস চালুর উদ্যোগ ইতিমধ্যেই গ্রহণ করা হয়েছে।

দিবসকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, শিক্ষামন্ত্রী, মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী, এবং বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের মাননীয় চেয়ারম্যানের বাণী সম্বলিত বিশেষ ক্রোড়পত্র জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি’।  

এছাড়াও জনসংযোগ, তথ্য ও প্রকাশনা বিভাগের প্রশাসক এবং বাংলা বিভাগের প্রফেসর ড. সরিফা সালোয়া ডিনা এর ‘বেগম রোকেয়ার স্বদেশ ভাবনা’ শীর্ষক একটি প্রবন্ধ ক্রোড়পত্রে স্থান পেয়েছে।  
   
এদিকে রোকেয়া দিবসের বর্ণাঢ্য র‌্যালিসহ সকল কর্মসূচিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ অতিথিরা অংশ নেন।


এবিএন/তপন রায়/জসিম/তোহা

এই বিভাগের আরো সংবাদ
well-food