বহিষ্কৃত হয়েও হলে থাকছেন পবিপ্রবির শিক্ষার্থী ব্রোজেন মন্ডল

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৪:১০

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (পবিপ্রবি) আবাসিক হল থেকে বহিষ্কৃত হওয়ার সাড়ে পাঁচ মাস পরেও হলেই থাকছেন ব্রোজেন মন্ডল নামে এক শিক্ষার্থী। প্রেমিকা নিয়ে আপত্তিকর অবস্থায় আটক হওয়ার পর শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে গত ৭ জুন তাকে আবাসিক হল থেকে সাময়িক বহিষ্কার করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বহিষ্কৃত ব্রোজেন মণ্ডল দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা
অনুষদের ৭ম সেমিস্টারের ছাত্র ও সনাতন সংঘের সভাপতি।

হল সূত্র জানায়, বহিষ্কৃত হওয়ার পরও বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের এম কেরামত আলী হলের ‘এ’ ব্লকের ২১০ নম্বর কক্ষে থাকছেন তিনি। মাঝে মাঝে প্রশাসনের নজর এড়াতে একই হলের সহপাঠীদের কক্ষেও তাকে অবস্থান করতে দেখা গেছে।


সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ৫ জুন (মঙ্গলবার) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) ভবনের একটি কক্ষ থেকে পুষ্টি ও খাদ্য বিজ্ঞান অনুষদের তৃতীয় সেমিস্টার এক ছাত্রীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় ব্রোজেন মন্ডলকে আটক করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। পরে শিক্ষার্থীরা ওই যুগলকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের হাতে তুলে দেয়। তবে বিয়েতে দুজনের সম্মতি না থাকায় ওই রাতে মুচলেকা নিয়ে নিজ নিজ অভিভাবকদের জিম্মায় তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। এরপর অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় ছাত্র শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তাদেরকে হল থেকে বহিষ্কার করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে বহিষ্কৃত ব্রোজেন মন্ডল বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে কিছু বলতে চাচ্ছি না।’

এম কেরামত আলী হলের প্রভোস্ট ড. গোপাল সাহা বলেন, তার বহিষ্কার আদেশ
ইতিমধ্যে কার্যকর হয়েছে। হতে পারে সে আমাদের চোখ এড়িয়ে হলে থাকছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।

এবিএন/জি এম শান্ত/গালিব/জসিম
 

এই বিভাগের আরো সংবাদ