ইবির ছাত্রী হলে পানি সংকট : মধ্যরাতে বিক্ষোভ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:২১

গত ৫দিন ধরে পানি সংকট। হল প্রভোস্টকে সমস্যার কথা বার বার জানিয়েও কোন সমাধান হয়নি। অবশেষে মধ্যরাতেই বিক্ষোভে নামে ভুক্তভোগি ছাত্রীরা।

গতকাল মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টার দিকে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ হাসিনা হলে এই ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল রাত ১০টার দিকে হঠাৎ ছাত্রীরা হল গেটে এসে জমায়েত হয়। পরে তারা ‘পানি নাই, পানি চাই’ স্লোগান দিতে থাকে। একপর্যায়ে তারা হলের প্রধান ফটক অতিক্রম করে। এসময় হলের গৃহশিক্ষক নাসিমুজ্জামান তাদের শান্ত করার চেষ্টা করলেও তারা আন্দোলন চালিয়ে যান। পরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে প্রভোস্ট এসে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিলে তারা হলে ফিরে যান। 

ভুক্তভোগি ছাত্রীরা জানায়, গত ৫ দিন ধরে হলের উত্তর ব্লকে (পুরাতন ব্লক) পানি সংকট। দিনে দুয়েক ঘন্টা পানি থাকে তারপর আর পানি পাওয়া যায় না। এছাড়া পানির সাথে ময়লা আসে ফলে ওই পানি ব্যবহার করলে চুলকানি দেখা দেয়। বিষয়টি আমরা প্রভোস্ট স্যারকে বার বার জানালেও কোন স্থায়ী সমাধান পায়নি। 

এবিষয়ে হলের আবাসিক ছাত্রী তানিয়া শেখ জানান, ‘সারাদিন ক্লাস পরীক্ষা শেষে ক্লান্ত হয়ে হলে ফিরি। কিন্তু ওয়াশরুমে গিয়ে দেখি হাতমুখ ধোয়ারও পানি নেই, ভেবেছিলাম রাতে পানি ছাড়া হবে। অপেক্ষায় থেকে রাতেও যখন পানি এলো না তখন বাধ্য হয়ে আমরা আন্দোলনে নেমেছি।’

হলের আরেক ছাত্রী শারমিন খাতুন বলেন, ‘এই সমস্যাটি আজ নতুন নয়। এর আগেও বহুবার হয়েছে। শুধু পানি সংকটই নয়, দুয়েক ঘন্টা যা পানি পাওয়া যায় তা ব্যবহার করলে শরীরে চুলকানি শুরু হয়। আমরা এর স্থায়ী সমাধান চাই।’

হল প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. মিজানুুর রহমান বলেন, ‘সমস্যা সমাধানে ইঞ্জিনিয়ার অফিস গত ৫দিন ধরে কাজ করে যাচ্ছে। আশা করি খুব দ্রুতই সমস্যার সমাধান হবে।’
এই বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রকৌশলী আলিমুজ্জামান টুটুল বলেন, ‘আমরা বার বার ট্যাংকি পূর্ণ করে দিলেও অদৃশ্য কারণে পানি শূন্য হয়ে যাচ্ছে। আর গতকাল রাতের অনাকাঙ্খিত ঘটনাটি বিদ্যুতের ভোল্টেজ সমস্যার কারণে ঘটেছিল। ইতোমধ্যে ইঞ্জিনিয়ার অফিসের পুরো টিম এ নিয়ে কাজ শুরু করেছে। খুব দ্রুতই সমস্যার সমাধান হবে।’

এবিএন/অনি আতিকুর রহমান/জসিম/নির্ঝর

এই বিভাগের আরো সংবাদ