ঈদে সরকারি-বেসরকারি চাকরিজীবীদের কর্মস্থলে থাকার নির্দেশ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৪ জুলাই ২০২০, ০৯:৪৮

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সব সরকারি, বেসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ঈদের সরকারি বা ঐচ্ছিক ছুটিতে আবশ্যিকভাবে কর্মস্থলে অবস্থানের জন্য নির্দেশ দিয়েছে সরকার।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পর সোমবার (১৩ জুলাই) রাতে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

এতে বলা হয়, ‘করোনাভাইরাসের সংক্রমণের বিস্তার দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ায় ঈদুল আজহার সময় উক্ত সংক্রমণের বিস্তাররোধে সকাল সরকারি/বেসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ঈদের সরকারি বা ঐচ্ছিক ছুটিতে আবশ্যিকভাবে কর্মস্থলে অবস্থানের জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হলো।’

করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে কোরবানির ঈদের ছুটি বাড়ানো হবে না বলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সোমবারই জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ঈদের সময় যে তিন দিন ছুটি আছে এই ছুটি আর বর্ধিত হবে না। যে যেখানে থাকবেন, যার যেখানে কর্মস্থাল তিনি তার হেডকোয়ার্টার ত্যাগ করতে পারবেন না।’

জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা অনুযায়ী এবার আগামী ৩১ জুলাই বা ১ আগস্ট কোরবানির ঈদ হবে। ১ আগস্ট ঈদ হবে ধরে নিয়ে ৩১ জুলাই, ১ ও ২ অগাস্ট ঈদের ছুটি নির্ধারণ করা আছে। ঈদ ৩১ জুলাই হলে ৩০ জুলাইও সরকারি ছুটি থাকবে, সে ক্ষেত্রে ঈদের ছুটি হবে চার দিন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের পর গত ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে, আগামী ৬ আগস্ট পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি ঘোষণা করা আছে। আর গত ২৬ মার্চ থেকে ৩০ মে পর্যন্ত টানা সাধারণ ছুটির পর ৩১ মে থেকে সীমিত পরিসরে অফিস চলছে। আগামী ৩ আগস্ট পর্যন্ত এভাবেই অফিস চলবে বলে সরকারি সিদ্ধান্ত রয়েছে। সীমিত পরিসরে অফিস চালুর পর গত ১ জুন থেকে গণপরিবহন চলছে। কোরবানির ঈদের আগে গণপরিবহন চলাচল অব্যাহত থাকবে কি না, সে বিষয়ে সরকারের তরফ থেকে এখনো কিছু জানানো হয়নি।

মহামারীর মধ্যে রোজার ঈদের সময় বিধিনিষেধ অনেক শিথিল করায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েছে বলে বিশেষজ্ঞদের মত। রোজার ঈদের পর শুধু জুন মাসেই রোগীর সংখ্যা ১ লাখ বেড়ে যায়। 
দেশে এ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৮৬ হাজার ৮৯৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৩৯১ জনের। 

এবিএন/সাদিক/জসিম

এই বিভাগের আরো সংবাদ