পাঁচ কীর্তিমান বাঙালি পাচ্ছেন ‘বিশ্ব বাঙালি পুরস্কার-২০১৯’

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০১ এপ্রিল ২০১৯, ০০:৫৫

ভাষা আন্দোলন এবং গবেষণাসহ সমাজে বিশেষ অবদান রাখায় পাঁচ কীর্তিমান বাঙালি পাচ্ছেন ‘বিশ্ব বাঙালি পুরস্কার-২০১৯’।

তারা হলেন- অধ্যাপক এমিরেটাস সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী (বাংলাদেশ), অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ (বাংলাদেশ), অধ্যাপক সুভাষ চন্দ্র মুখোপাধ্যায় (ভারত), কবি পার্থ বসু (ভারত) ও অধ্যাপক তপোধীর ভট্টাচার্য (ভারত)।

শনিবার (৩০ মার্চ) রাজধানীর পরীবাগস্থ সংস্কৃতি বিকাশ কেন্দ্রে সংবাদ সম্মেলন করে এই পাঁচজনকে এ পুরস্কারের জন্য মনোনীত করে বিশ্ব বাঙালি সংঘ। এসময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির সভাপতি কবি ও সম্পাদক রাজু আহমেদ মামুন।

মনোনীত কীর্তিমান বাঙালিদের নাম ঘোষণা করেন বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সাবেক সেক্রেটারি জেনারেল আখতারুজ্জামান। এসময় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিশ্ব বাঙালি সংঘের সদস্য মজিব মহম্মদ।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় একটি অনুষ্ঠান করে এই সম্মাননা এবং পুরস্কারের অর্থমূল্য মনোনীত সবার হাতে তুলে দেওয়া হবে।

অধ্যাপক এমিরেটাস সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী শিক্ষা ও গবেষণায় বিশেষ অবদান রাখায় তাকে বিশ্ব বাঙালি উপাধি এবং পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়েছে।

আর অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদকে বাংলাদেশের স্কুল-কলেজের ৮০ লাখেরও বেশি শিক্ষার্থীকে সৃজনশীল বই পড়া আন্দোলনে যুক্ত করে উন্নত জাতি গঠন প্রক্রিয়ায় বিশেষ অবদানের জন্য এ উপাধি ও পুরস্কারে মনোনীত করা হয়।

বিহারের মানভূম-সিংভূম বাংলা ভাষা আন্দোলনে বিশেষ অবদানের জন্য অধ্যাপক সুভাষ চন্দ্র মুখোপাধ্যায়কে এ উপাধি ও পুরস্কারে মনোনীত হন।

কলকাতাসহ সমগ্র পশ্চিমবঙ্গে বাংলা ভাষা এবং বিপন্ন বাঙালিদের অধিকার রক্ষায় সাম্প্রতিককালে সামাজিক গণমাধ্যম থেকে গড়ে ওঠা বাংলাপক্ষ আন্দোলনের সক্রিয় পুরোধা ব্যক্তি হিসেবে কবি পার্থ বসুকে মনোনীত করা হয় বলে জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।

সম্প্রতি আসামে নিপীড়িত এবং সর্বহারা বাঙালিদের পক্ষে কলমযোদ্ধা হয়ে সম্মুখ সমরে লড়াই করার জন্য অধ্যাপক তপোধীর ভট্টাচার্যকে এ উপাধি এ পুরস্কার দেওয়া হবে।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন- সংগঠনের প্রবীণ সদস্য খন্দোকার যুবায়ের হাসান, লোকমান তাজ, শামিম আহমেদ, তুহিন জনি, মৌরী তানিয়া প্রমুখ।

এবিএন/শংকর রায়/জসিম/পিংকি

এই বিভাগের আরো সংবাদ