বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৮, ১৩ বৈশাখ ১৪২৫
logo
 
  • হোম
  • জাতীয়
  • ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের বন্ধন আত্মার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
আইটেক ও আইসিসিআর দিবস উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠান

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের বন্ধন আত্মার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের বন্ধন আত্মার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ঢাকা, ২০ মার্চ, এবিনিউজ : স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ‘ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের আত্মার বন্ধন, রক্তের বন্ধন। দুই দেশের মানুষের রক্তের বিনিময়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছে। তাই এ বন্ধনকে কখনোই ছিন্ন করা যাবে না। এটি এগিয়ে যাবেই। ’

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের বন্ধন আত্মার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

গতকাল সোমবার জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তনে ঢাকার ভারতীয় হাই কমিশন আয়োজিত ভারতীয় কারিগরি ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা (আইটেক) কর্মসূচি এবং ভারতীয় সাংস্কৃতিক সম্পর্ক পরিষদ (আইসিসিআর) দিবস উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের বন্ধন আত্মার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

এসময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দুই দেশের বন্ধুত্বকে নষ্ট করতে অনেক চক্রান্ত হয়েছে। কিন্তু সেই চক্রান্ত ফলপ্রসূ হয়নি। বন্ধুত্বই টিকে আছে। দুদেশের এ সম্পর্ক দৃঢ়তার সঙ্গে সামনে এগিয়ে যাবে। যেখানে বাংলাদেশের নেতৃত্ব দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।’

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের বন্ধন আত্মার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ভারত ও বাংলাদেশ উভয়ের শত্রু অভিন্ন উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দু’দেশের কমন শত্রু হচ্ছে দারিদ্রতা ও চরমপন্থা। বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের উত্থান চেষ্টা হয়েছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা এটি থামিয়ে দিয়েছি। এখানে সামপ্রদায়িকতার বিষবাষ্প ছড়ানোর চেষ্টাও রয়েছে। এটি শেখ হাসিনার সরকার অত্যন্ত দৃঢ়ভাবে মোকাবিলা করছে।

মোহাম্মদ নাসিম আলোচনার মাধ্যমে বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুপ্রতিম দুই দেশের বিদ্যমান সমস্যাগুলোর সমাধান হবে বলে আশা প্রকাশ করে বলেন, অটল বিহারী বাজপেয়ী থেকে শুরু করে বর্তমান মোদি সরকার পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলোচনার মাধ্যমে গঙ্গা, সীমান্ত, ছিটমহলসহ বিভিন্ন সমস্যার সমাধান আলোচনার টেবিলেই করেছেন। এখনো যে সব সমস্যা রয়েছে তা টেবিলে আলোচনার মধ্য দিয়েই হবে।

সরকার সামপ্রদায়িকতা এবং জঙ্গিবাদের সমর্থকদের সঙ্গে কোনো আপোষ করে না এবং কোনো সুযোগ দেয় না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারতীয় সৈনিকদের আত্মত্যাগের কথা কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করে নাসিম বলেন, আমাদের স্বাধীনতা অর্জনে তাদের অবদান ছিল অনন্য। তারা স্বাধীনতার জন্য প্রাণ দিয়েছেন। সেই রক্তে ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের যে সম্পর্ক সৃষ্টি হয়েছে, তা বন্ধুত্বপূর্ণভাবে ভবিষ্যতে আরো সুদূরপ্রসারী হবে।

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের বন্ধন আত্মার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেন, ‘বাংলাদেশের সুসময় ও দুঃসময়ে ভারত বাংলাদেশের পাশে থাকবে। বাংলাদেশ আত্মবিশ্বাসী একটি দেশ হিসেবে উঠে দাঁড়াচ্ছে। ইতোমধ্যেই উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উঠে আসছে। বাংলাদেশের এ অগ্রযাত্রায় ভারত সবসময় বন্ধু হিসেবে পাশে থাকবে। ’

ভারতীয় হাইকমিশনার আরো জানান, ২০০৭ সাল থেকে আইটেক কর্মসূচির অধীনে সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি বাংলাদেশি তরুণ পেশাজীবী ভারতে এ ধরনের বিশেষায়িত কোর্স সম্পন্ন করেছেন। ভারত সরকার ১৯৭২ সাল থেকে ভারতীয় সাংস্কৃতিক সম্পর্ক পরিষদ (আইসিসিআর) এর মাধ্যমে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের শিক্ষাবৃত্তি দিয়ে আসছে। চিকিত্সা শাস্ত্র ছাড়া স্নাতক থেকে পোস্ট ডক্টরাল পর্যায়ে সকল বিষয়ে আইসিসিআর বৃত্তি দেয়া হয়। এ পর্যন্ত ভারতে অধ্যয়নের জন্য ৩ হাজার ২০০ এর বেশি বাংলাদেশি শিক্ষার্থীকে আইসিসিআর শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করেছে।

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের বন্ধন আত্মার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে আইটিইসি ও আইসিসিআর অ্যালামনাই শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এবিএন/জনি/জসিম/জেডি

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত