বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫
logo
feb18  

অমর একুশে গ্রন্থমেলা: ১১তম দিনে বই এসেছে ৩৪৪টি

অমর একুশে গ্রন্থমেলা: ১১তম দিনে বই এসেছে ৩৪৪টি

ঢাকা, ১১ ফেব্রুয়ারি, এবিনিউজ : আজ রবিবার, অমর একুশে গ্রন্থমেলার ১১তম দিন। মেলা চলে বিকেল ৩:০০টা থেকে রাত ৯:০০টা পর্যন্ত। মেলায় আজ নতুন বই এসেছে ১০২টি।
বিকেল ৪:০০টা গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় রুশ বিপ্লবের শতবার্ষিকী শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ইমতিয়ার শামীম। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন ডা. সারওয়ার আলী ও সৈয়দ আজিজুল হক। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক পবিত্র সরকার।
প্রাবন্ধিক বলেন, একশ বছর আগে এই পৃথিবীর একটি দেশে এক বিপ্লব হয়েছিল, যার দিকে এখনও আমাদের ফিরে তাকাতে হয়, যা এখনও আমাদের উদ্দীপ্ত করে। পৃথিবীতে ১৯১৭ সালের আগে কিংবা পরে আরও অনেক পরিবর্তন ঘটেছে, কিন্তু এমন কোনো পরিবর্তন বোধকরি আর ঘটেনি যার মধ্যে দিয়ে একেবারে পথের মানুষটিও জেগে উঠেছে, নিজের সমস্ত ক্ষুদ্রতা, দীনতা ও পুরানো ধারণা ছেড়ে কথা বলে উঠেছে ঝলমলে চোখে। তিনি বলেন, সমাজতন্ত্রের কাছ থেকে সোভিয়েত রাশিয়ার জনগণের প্রাপ্তির জায়গাগুলো এখনকার অনেকের কাছেই হয়তো আর তীব্র আকর্ষক কিছু মনে হবে না। কিন্তু এটাই সত্যি যে, সোভিয়েত রাশিয়ার মানুষ ১৯১৭ সালের এই বিপ্লবের মধ্যে দিয়ে তার মৌলিক চাহিদাগুলো পূরণ করার পরিবেশ পেয়েছিল।
আলোচকবৃন্দ বলেন, বিশ্বসভ্যতার একটি যুগান্তকারী ঘটনা ছিল ১৯১৭ সালের রুশ বিপ্লব। রুশ বিপ্লবের মাধ্যমে রাজনীতি, অর্থনীতি, শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতি জগতে এক নব-জোয়ার সৃষ্টি হয়েছিল। স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় বাঙালির যে সংগ্রাম তার পেছনেও প্রেরণাশক্তি হিসেবে কাজ করেছে এ বিপ্লব। অসাম্প্রদায়িক ও শোষণমুক্ত দেশ গড়ার যে স্বপ্ন আমরা দেখি তার প্রেরণাও আমরা পাই রুশ বিপ্লব থেকেই। আজ বিশ্ব প্রেক্ষাপটে রাজনৈতিক পরিম-লে আদর্শহীনতার যে পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে তা মোকাবেলায় রুশ বিপ্লব আমাদের পথ দেখাতে পারে।
সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক পবিত্র সরকার বলেন, পৃথিবীতে শ্রেণিবিভক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠার পর থেকেই শোষকের বিরুদ্ধে শোষিতের বিপ্লবের ইতিহাস রয়েছে। তার ধারাবাহিকতাতেই ১৯১৭ সালে মহান রুশ বিপ্লবের মাধ্যমে সমাজতান্ত্রিক
রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হয়। কিন্তু সে বিপ্লব শুধু রুশ দেশেই আবদ্ধ থাকেনি, সমগ্র পৃথিবীর দৃষ্টিভঙ্গি বদলে দিয়েছিল। আত্মদানের মাধ্যমে স্বপ্নপূরণের অনন্য উদাহরণ সৃষ্টি করেছিল রুশ বিপ্লব। সাহিত্য জগতেও বিপ্লবের বাণী ছড়িয়ে দিয়েছিল রুশ বিপ্লব এবং ধ্বনিত করেছিল শোষণমুক্তির কথা, মানুষের অধিকার আদায়ের কথা, নারীমুক্তির কথা।
সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগীত পরিচালনা করেন আবুল ফারাহ্ মো. তোয়াহার পরিচালনায় সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘কেন্দ্রীয় খেলাঘর আসর’, মুজতবা আহমেদ মুরশেদের পরিচালনায় ‘স্বভূমি লেখক শিল্পী কেন্দ্র’ এবং মো. শহিদুল্লাহর পরিচালনায় ‘সারেগামাপা সঙ্গীত পরিষদ’।

আগামীকালের অনুষ্ঠানসূচি :
আগামীকাল ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/৩০ মাঘ ১৪২৪ সোমবার। অমর একুশে গ্রন্থমেলার ১২তম দিন। মেলা চলবে বিকেল ৩০:০০টা থেকে রাত ৯:০০টা পর্যন্ত।
বিকেল ৪:০০টা গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে শিক্ষা শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন আবুল মোমেন। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন রাশেদা কে চৌধূরী, আতিউর রহমান এবং এবং এ. এম. মাসুদুজ্জামান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন মনজুর আহমেদ। সন্ধ্যায় রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

এবিএন/ফরিদুজ্জামান/জসিম/এফডি

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত