সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ৭ ফাল্গুন ১৪২৫
logo
feb18  

ঘরে বসেই বিউটি পার্লার সুন্দরী!

ঘরে বসেই বিউটি পার্লার সুন্দরী!

ঢাকা, ০৯ ফেব্রুয়ারি, এবিনিউজ : বিউটি পার্লারে ফেসিয়াল করতে যাওয়া মানেই একগাদা টাকা নষ্ট। ত্বক উজ্জ্বল হবে বটে কিন্তু টাকা খরচের দুঃখটা মনের কোনে থেকেই যায়। অথবা বাড়িতে বসে ফেসিয়াল করতে চাইলে সে ফেসপ্যাকের দামও নেহাত কম নয়। ঘরে বসেই খুব সহজে এবং সস্তায় ফেসিয়াল করতে খুব চেনা কয়েকটি উপাদান ব্যবহার করা যায়। এই উপাদান গুলি শুধু সস্তা তাই নয় সহজলভ্যও বটে। সে রকম কয়েকটি ফেসপ্যাকের সন্ধান রইল আপনাদের জন্য-

নর্মাল ত্বক:
যাদের নর্মাল ত্বক তারা খুব সহজেই বাড়িতে মুলতানি মাটির ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়াও সাদা কেওলিন পাউডারের সঙ্গে কর্নফ্লাওয়ার, ওট আর ডিমের সাদা অংশ ভালো করে ফেটিয়ে তার মধ্যে কয়েক ফোঁটা জিরানিয়াম অয়েল মিশিয়ে ফেসপ্যাক তৈরি করা যায়। ওই ফেসপ্যাক মুখে লাগিয়ে খানিকক্ষণ রেখে ভালো করে মুখতা ধুয়ে নিন। প্রতিদিন নিয়ম করে এই ফেসপ্যাক ব্যবহার করলে মুখের ক্লান্ত পেশী গুলি সতেজ হয়। যাদের গায়ের রং একটু শ্যামলা তারাও এই প্যাক স্বচ্ছন্দে ব্যবহার করতে পারেন।

কোঁচকানো ত্বক:
চার থেকে পাঁচটা আমন্ড নিয়ে ভালো করে গ্রাইন্ডারে গুঁড়ো করে নিন। এর মধ্যে জল দেবেন না। এবার এই গুঁড়োর মধ্যে এক টেবিল চামচ মধু আর ডিমের সাদা অংশ ভালো করে ফেটিয়ে ফেসপ্যাক তৈরি করতে পারেন। মুখে লাগিয়ে অন্তত ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এরপর একটা ভেজা কাপড় দিয়ে ধীরে ধীরে মুখটা মুছে নিন। যাদের ত্বক তুলনামূলক কোঁচকানো তাদের ক্ষেত্রে এই পদ্ধতি বেশ কাজ দেয়।

শুষ্ক ত্বক:
শুষ্ক ত্বকের জন্য ফ্রুট ফেসপ্যাক সবচেয়ে বেশি কাজ দেয়। পেয়ারা বা পিচফল বেটে মুখে লাগিয়ে মিনিট কুড়ি রেখে তারপর মুখটা ভালো করে ধুয়ে নিন। এতে আপনার ত্বক অনেক বেশি সতেজ হবে। এছাড়াও  অ্যাভোকাডো বা কলার পেস্ট বানিয়েও ফেসপ্যাক হিসেবে ব্যবহার করা যায়।

তৈলাক্ত ত্বক:
তৈলাক্ত ত্বকের জন্য আপেল ও মধুর ফেসপ্যাক সবচেয়ে বেশি কাজ দেয়। দু টুকরো আপেলকে ভালো করে পেস্ট করে তার সঙ্গে মধু ভালো করে মিশিয়ে নিন। মুখে মিনিত কুড়ি রেখে ধুয়ে ফেলুন। আপেল যদি খুব বেশি দামি মনে হই তবে পাকা টমেটোর সঙ্গে একই উপায়ে ফেওপ্যাক তৈরি করতে পারেন। মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যেই উজ্জ্বল ত্বক পেতে পারেন খুব সহজেই।

উজ্জ্বল ত্বক:
মধু, চন্দনকাঠ গুঁড়ো এবং কলা দিয়ে ফেসমাস্ক তৈরি করতে পারেন। কলাকে ভালো করে ব্লেন্ড করে তাতে মধু ও চন্দনকাঠ গুঁড়ো মিশিয়ে একটা গাঢ় পেস্ট তৈরি করে মুখে লাগিয়ে মিনিট কুড়ি রেখে দিন। প্রলেপটি শুকিয়ে গেলে তুলে ফেলুন। এই প্রকার ফেওমাস্ক মূলত মুখের নিস্তেজ ত্বককে অনেক বেশি উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।

এবিএন/ফরিদুজ্জামান/জসিম/এফডি

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত