সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ৭ ফাল্গুন ১৪২৫
logo
feb18  
  • হোম
  • সারাদেশ
  • কালীগঞ্জে বোরো ধানের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হওয়ার আশংকা
তীব্র শীত ও ঘন কুয়াশার কারণে কৃষকের বীজতলা নষ্ট

কালীগঞ্জে বোরো ধানের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হওয়ার আশংকা

কালীগঞ্জে বোরো ধানের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হওয়ার আশংকা

ঝিনাইদহ, ১৯ জানুয়ারি, এবিনিউজ : তীব্র শীত ও ঘন কুয়াশার কারণে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের কৃষকদের রোপণকৃত বীজতলা নষ্ট হয়ে গেছে। যার কারণে কৃষকরা বেরো ধান রোপনে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন। শীত ও ঘন কুয়াশার কারণে বীজতলা লালচে হয়ে যাওয়ায় কৃষকের জমিতে রোপন করা বোরো ধানের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হবার আশংকা দেখা দিয়েছে।

কালীগঞ্জ উপজেলার বলাকান্দর গ্রামের ফারুক হোসেন মিন্টু, আব্দুল আজিজ, মসলের উদ্দীন, কাত্তিকসহ একাধিক চাষী বলেন, তারা বাড়ির পাশের জমিতে ২৮ জাতের ধানের বীজতলা করেছিলেন। কিন্তু তীব্র শীত ও ঘন কুয়াশার কারনে বীজতলা লালচে হয়ে গেছে। লালচে বীজতলা জমিতে দিলে তা থেকে ভাল ধান পাওয়া যাবে না।  সূর্যের আলো না পেয়ে এমনটি হয়েছে বলে তারা দাবি করেন। এখন নতুন করে কোন বীজতলা তৈরি করা সম্ভবও হচ্ছে না। ফলে ধানের চারার অভাবে অনেক কৃষকের জমিতে বোরো ধান রোপণ করা সম্ভব হবে না।

কৃষকরা আরও জানান, ২ কেজি উন্নত ধানের বীজের দাম ২৩০ থেকে ২৫০ টাকা। এক বিঘা জমিতে ৮শ থেকে এক হাজার টাকার বীজতলা লাগে। কিন্তু শীত ও ঘন কুয়াশার কারণে বীজতলা লালচে হয়ে নষ্ট হয়ে গেছে। আর যেসব জমিতে বীজতলা রোপন করা হয়েছে তাও নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এখন নতুন করে বীজতলা দেয়া যাচ্ছে না। তাছাড়া বাজারেও ভাল বীজতলা পাওয়া যাচ্ছে না।

তবে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ জাহিদুল করিম এ প্রতিবেদককে বলেন, কুয়াশার কারণে কিছু বীজতলা লালচে হয়ে গেছে। এতে কোনো সমস্যা নেই এবং বোরো ধানের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে কোনো বাধা হবে না বলে দাবি করেন।

এবিএন/যবনিকা/জসিম/এমসি

প্রধান শিরোনাম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত